বলিউড

বাংলার ছেলে স্নিগ্ধজিৎ-এর গানে মুগ্ধ ধর্মেন্দ্র! ‘আজ মৌসম বড়ে বেইমান হ্যায়’ গেয়ে অভিনেতা ধর্মেন্দ্রর প্রশংসা কুড়োলেন স্নিগ্ধজিৎ ভৌমিক

হিন্দি এন্টারটেইনমেন্ট এর একটি অন্যতম জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো হলো সারেগামাপা। শুরুর প্রথমদিন থেকেই এই শো দারুন জনপ্রিয়। দর্শকেরা দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উঠে আসা প্রতিযোগীদের দারুন সাপোর্ট করেছেন। শো এর ফাইনাল বেশি দূরে নয় আর ফাইনাল পর্বে গিয়ে সেরার শিরোপা জিতে নেওয়ার দৌড়ে আছে বাংলার ছেলে স্নিগ্ধজিৎ ভৌমিক। শো তে আসার প্রথমদিন থেকেই সে দর্শকদের মন জয় করেছে। তার কন্ঠে অনবদ্য সব গান মাতিয়ে রেখেছে দর্শক থেকে বিচারক প্রত্যেককে।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া তে স্নিগ্ধজিৎ সারেগামাপা এর মঞ্চের একটি ভিডিও শেয়ার করেছে। ঐদিন মঞ্চে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বলিউডের অন্যতম প্রবীণ অভিনেতা ধর্মেন্দ্র। স্নিগ্ধজিৎ ঐদিন মঞ্চে জনপ্রিয় গান ‘আজ মৌসম বড়ে বেইমান হ্যায়’ গানটি গেয়ে শোনান। ১৯৭৩ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘লোফার’ সিনেমা।

সেই ছবিতেই এই গানে অভিনয় করেছিলেন অভিনেতা ধর্মেন্দ্র এবং মুমতাজ। আর এই গান গেয়েছিলেন মহম্মদ রফি। ওই একইসাথে স্নিগ্ধজিৎ ‘কাহানি কিসমত কি’ ছবি থেকে ‘রাফতা রাফতা দেখো, আঁখ মেরি লাড়ি হ্যায়’ গানটি গান। এই গানটি গেয়েছেন কিশোর কুমার। মঞ্চে সকলেই ঐদিন স্নিগ্ধজিৎ এর গান দারুন পছন্দ করেছেন, প্রত্যেকেই মুগ্ধ হয়েছেন তার গানে।

গান শেষ হওয়ার পরই ধর্মেন্দ্র স্নিগ্ধজিৎ কে আরও একবার গানের প্রথম লাইনটি গেয়ে শোনাতে বলেন। এরপরই নিজেই ওই গানের দ্বিতীয় লাইন গাইতে শুরু করেন। হিমেশ রেশমি ও তার সঙ্গে গলা মিলিয়েছেন। এরপর ধর্মেন্দ্র স্নিগ্ধজিৎ এর গানের দারুন প্রশংসা করেছেন। তিনি বলেছেন “তোমার গলায় জাদু আছে,” ধামাল, কামাল এই দুটি শব্দ তিনি ব্যাবহার করেছেন। এই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে ক্যাপশন লিখেছেন “সময় সময় স্বপ্ন মনে হয়, কিন্তু সত্যি। ধর্মেন্দ্র দেওল স্যারের সঙ্গে জীবনের অন্যতম সেরা মুহূর্ত, পিঠে হাত রাখার পর অনুভূতিটা বলে বোঝাতে পারব না।”

Back to top button