বাংলা সিরিয়াল

সহ-অভিনেতা নীলের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ করলেন উমা! কীসের অভিযোগ আনলেন নীলের বিরুদ্ধে?

বর্তমানে টিআরপি লিস্টের সেরা পাঁচটি ধারাবাহিকের মধ্যে জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘উমা’ হলো একটি। এখানে একটি মহিলা ক্রিকেটারের লড়াইয়ের গল্প দেখানো হয়। খুব নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের একটা মেয়ে উমা, যার মাথায় কোন বড় মানুষের হাত নেই, সে কীভাবে লড়াই করে নিজেকে ক্রিকেটের জগতে প্রতিষ্ঠা করে তাই এই গল্পের উপজীব্য। ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী উমার এই স্বপ্নপূরণের লড়াইয়ে এখনো অবধি তার স্বামী অভিমুন্য তার পাশেই রয়েছে আর সে উমার বিরুদ্ধে হওয়া সকল ষড়যন্ত্রকে তছনছ করে উমাকে সব সময় নির্দোষ প্রমাণ করে। অন্যদিকে উমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করার লোকের‌ও অভাব নেই। নামকরা ক্রিকেটার আলিয়া সবসময় নতুন নতুন ছক কষছে উমাকে ক্রিকেটের মাঠ থেকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য। তবে উমা, অভিমুন্যর সাথে এক হয়ে আলিয়ার সমস্ত ষড়যন্ত্র বানচাল করে দেয় প্রতিবার। তবে এইবার আলিয়ার পরিবর্তে স্বামী অভিমুন্যর বিরুদ্ধে অভিযোগ করতেই পুলিশের দ্বারস্থ হলেন উমা! কেন এই কড়া পদক্ষেপ নিলেন উমা?তবে কি এও আলিয়ার নতুন কোনো ষড়যন্ত্র?

না। এটি আলিয়ার ষড়যন্ত্র নয়। বরং সম্পূর্ণ অন্য একটি কারণে অভিমুন্যর ওপর অভিযোগ এনেছেন উমা। ধারাবাহিকের শুটিং সেটে প্রত্যেক কলাকুশলী হই হুল্লোর আড্ডা এবং মজা করে। অনেকে আবার ইনস্টাগ্রামের রিল ভিডিও করেন। অনেকে আবার সেলফি তুলে অনুরাগীদের সাথে তা শেয়ার‌ও করেন। সম্প্রতি এরকমই একটি রিলস বানাচ্ছিলেন আলিয়া আর উমা! আর সেখানেই ঘটে বিপত্তি।

কিছুদিন আগেই মুক্তি পেয়েছে মিনি সিনেমার নতুন গান ‘বেসুরে’। এই গানেই গলা মিলিয়েছেন উমার অভিনেতা অভিনেত্রীরা। ভাইরাল ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, উমা ও আলিয়া নিজেদের মধ্যে সেলফি তুলছে আর তাদের পিছন দিয়ে উঁকি মারছে অভিমুন্য ও তার ভাই। এটি দেখতে পেয়েই উমা অভিমুন্যর নামে পুলিশের কাছে নালিশ জানায়। অপরাধের শাস্তি স্বরূপ পুলিশ তাদের কান ধরে উঠবস করায়। এর পরেই দেখা যায় মেয়েদের তরফ থেকে তাদের দিকে বন্ধুত্বের হাত বাড়ানো হচ্ছে, উমা ও আলিয়া নিজেদের ভুল স্বীকার করে নেয়। এরকম মজাদার ইনস্টাগ্রাম রিলেই মেতে উঠেছেন তারা আর তাদের এই মজার ভিডিও বেশ উপভোগ করছেন ভক্তরা।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ধারাবাহিকের গল্প একটি নতুন দিকে মোড় নিয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে উমাকে শায়েস্তা করতে অভিমুন্যর ভাইকে বিয়ে করে আলিয়া উপস্থিত হয়েছে চ্যাটার্জী বাড়িতে। এরপর যে গল্প ধামাকাদার হবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

Back to top button