TRP তালিকায় বিশাল চমক, চ্যানেল টপার মহাপীঠ তারাপীঠ! শীর্ষস্থানে মিঠাই

বিকেল হলেই লাইন দিয়ে শুরু হয়ে যায় বিভিন্ন চ্যানেলে বিভিন্ন ধারাবাহিকের সম্প্রচার। দর্শকদের মধ্যে একেক জন একেক রকম ধারাবাহিক পছন্দ করেন। প্রত্যেকের একটা নিজস্ব পছন্দের তালিকা আছে।

যে ধারাবাহিক তার দর্শককে যত বেশি বিনোদন দিতে পারবে তার টিআরপি তত বেশি হবে। অনেক সময় দর্শকরা কোন ধারাবাহিকের কত টিআরপি সেটা জানার পরই দেখেন।

এখন মোটামুটি সকলেই জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘মিঠাই’, ‘করুণাময়ী রানী রাসমণি’, ‘কৃষ্ণকলি’ এবং স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘শ্রীময়ী’ ‘খড়কুটো’ ‘দেশের মাটি’ ‘বরণ’ ‘মহাপিঠ তারাপিঠ’ দেখেন।

সম্প্রতি ‘মহাপিঠ তারাপিঠ’ টিআরপিতে পিছনে ফেলে দিল ‘খরকুটো’-কে। তবে লকডাউন এর কারণে অনেক ধারাবাহিকের শুটিং বাড়িতে বসে হচ্ছে যার জন্য অনেক ধারাবাহিকের মান অনেকটাই কমে গেছে।

জি বাংলা ধারাবাহিক মিঠাই এর টিআরপি সবথেকে বেশি। স্টার জলসার মহাপীঠ তারাপীঠ তৃতীয় স্থানে এবং খরকুটো চতুর্থ স্থানে আছে। স্টার জলসার বরণ প্রথম দশে জায়গা করে নিয়েছে।

অনেকটা পিছিয়ে পঞ্চম স্থানে জি বাংলার কৃষ্ণকলি, ষষ্ঠ স্থানে স্টার জলসার শ্রীময়ী। জি বাংলার রানী রাসমণি নবম স্থানে পিছিয়ে গেছে ( বর্তমানে এই ধারাবাহিকের পুরনো এপিসোড গুলো সম্প্রচারিত হচ্ছে)।

বাড়ির গৃহবধূরা এই ধারাবাহিক গুলি দেখেই সময় কাটান। একদিন দেখা না হলে তারা পরের দিনে তাঁর রিপিট টেলিকাস্ট দেখেন। বর্তমানে একটা এপিসোড মিস হয়ে গেলে অসুবিধা হয় না কারণ অনলাইন ওটিটি প্লাটফর্মে এখন দেখে নেওয়া যায় ধারাবাহিকের সমস্ত এপিসোড।

অ্যান্ড্রয়েড ফোন আর তাতে নেট থাকলেই কেল্লাফতে। বর্তমানে বেশিরভাগ ধারাবাহিকই বাড়িতে বসে শুটিং হচ্ছে ফলে বেশিরভাগ ধারাবাহিকের মান আগের থেকে অনেকটাই কমে গেছে। লকডাউন এর পরেই আবার শুরু হবে স্বাভাবিকভাবে শুটিং-এর কাজ।