বাংলা সিরিয়াল

গৌরী ও ঈশান কি পার্বতী এবং মহাদেবেরই অংশ, ‘গৌরি এলো’ ধারাবাহিকে আসছে বড় টুইস্ট, জি বাংলায় আসতে চলেছে নতুন ধারাবাহিক ‘গৌরী এলো’, কেমন হবে ধারাবাহিক!

চলতি বছরের শুরুতেই বাংলা টেলিভিশনের পর্দা এসেছে একগুচ্ছ নতুন বাংলা ধারাবাহিক। সেই ধারাবাহিকের হাত ধরে অভিনয় জগতে প্রবেশ ঘটেছে একগুচ্ছ নবাগতা অভিনেত্রী এবং অভিনেতার। সেরকমই একটি নতুন ধারাবাহিক হল জি বাংলার ‘গৌরী এলো’। সম্প্রতি বেশ কিছুদিন ধরেই আমরা এই ধারাবাহিকের প্রথম প্রমো ভিডিও দেখতে পাচ্ছি। ধারাবাহিকের প্রমো ভিডিও দেখেই স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে এই ধারাবাহিক একটি পারিবারিক গল্প বলবে। দর্শকদের ধারাবাহিকে প্রমো ভিডিওতে আমরা কেন্দ্রীয় চরিত্র হিসেবে দেখতে পাচ্ছি দুর্গা দুর্গেশ্বরী খ্যাত অভিনেতা বিশ্বরূপ চট্টোপাধ্যায় কে এবং বিশ্বরূপের বিপরীতে অভিনয় করতে দেখা যাবে নবাগতা অভিনেত্রী মোহনা মাইতি কে। স্বর্ণেন্দু সমাদ্দারের পরিচালনায় ক্রেজি আইডিয়াস মিডিয়াজ-এর প্রযোজনায় আসতে চলেছে মেগা সিরিয়াল ‘গৌরি এলো’ পরিচালকের পাশাপাশি এবার প্রযোজনায় দায়িত্ব সামলাতে চলেছেন স্বর্ণেন্দু।

ধারাবাহিকে মোহনা মাইতি ইন্ডাস্ট্রির একেবারে নবাগতা অভিনেত্রী। পেশায় তিনি একজন নৃত্যশিল্পী। এর আগে আমরা মোহনাকে ডান্স বাংলা ডান্সের মঞ্চে অংশ নিতে দেখতে পেয়েছি। নিজের অসাধারণ নাচের প্রতিভাতে তিনি দর্শকদের মন জয় করেছেন এর আগে। এবারে তার অভিনয় জগতে হাতে খড়ি হচ্ছে এই ধারাবাহিকের হাত ধরে। তবে এই নতুন ধারাবাহিকে কেমন চরিত্রে দেখা যাবে গৌরীকে তা নিয়ে বেশ আগ্রহী হয়ে রয়েছেন দর্শকেরা। ধারাবাহিকের গল্প অনুসারে জানা গিয়েছে গৌরী আর পাঁচটা সাধারণ মেয়ের থেকে একটু আলাদা। রটন্তী কালী পুজোর রাতে দাদু রঘুনাথ পুরোহিত চোখের সামনে একটা গোটা বাসকে দুর্ঘটনায় পুড়ে যেতে দেখেন। সেই দুর্ঘটনায় একটি সদ্যোজাত শিশু বেঁচে যায়। সেই শিশুটিকে উদ্ধার করে নিজের বৌমার হাতে তুলে দেয়। সেইদিনই সেই ছোট্ট শিশুর মায়াভরা মুখ দেখে গলে গিয়েছিল সুজাতা এবং তার শ্বশুর মশাই তবে এখনো গৌরীকে নিজের সন্তান হিসেবে মেনে নিতে পারেননি তাঁর বাবা।

স্বভাবে চঞ্চল হলেও রোজ ভোরবেলা দাদুর সঙ্গে উঠে মা কালীর সামনে গান গায় গৌরী। সবসময় মানুষের বিপদে ঝাপিয়ে পড়ে সে। গ্রামের প্রত্যেকেই তাকে চেনে। একবার গৌরীর ঘরে যে গান শুনে সে আর ভুলতে পারেনা অন্য দিকে মুখার্জিবাড়ি গ্রহ রত্নের ব্যবসার জন্য বিখ্যাত। তাদের বাড়িতে রয়েছে মা ঘোমটা কালীর প্রতিষ্ঠিত মন্দির। তাদের বিশ্বাস যেদিন পার্বতী এবং মহাদেবের দেহাংশ মিলিত হবে সেদিনই ঘোমটা কালীর ঘোমটা সরে যাবে।

আর প্রমো তে আমরা দেখতে পাই মুখার্জি বাড়ির ছেলে ঈশান এবং গৌরী পুজোর সময় কাছাকাছি চলে আসে এবং ঠিক সেইসময় ঘোমটা কালীর ঘোমটা সরে যায় আর সেই দৃশ্য দেখে বাড়ির প্রত্যেকে অবাক হয়ে যায়। আগামী দিনে ধারাবাহিকে কি কি হতে চলেছে সেটি দেখার জন্য চোখ রাখতে হবে ২৮শে ফেব্রুয়ারি থেকে ঠিক সন্ধ্যে সাড়ে সাতটায় জি বাংলার পর্দায়।

Back to top button