নিজের দুর্বলতার কথা অকপটে স্বীকার করলেন মিঠাই ওরফে সৌমিতৃশা, কি সেই ভয়ঙ্কর দুর্বলতা

ষ্টার জলসার এই মুহূর্তের জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘মিঠাই’ শুধু তাই নয় প্রায় এক সপ্তাহ ধরে টিআরপি ধরে রেখেছেন মিঠাই ওরফে সৌমিতৃশা।

নিজের মিষ্টি অভিনয় দিয়ে দর্শকের মনে ও ঘরে এক আলাদা জায়গা করে নিয়েছে সৌমিতৃশা। রিল জীবনে বিবাহিত হলেও রিয়েল জীবনে কি সত্যি সিঙ্গেল? সারাক্ষন একই প্রশ্ন তারা করে বেড়ায় অভিনেত্রীকে। নাহ আর চেপে রাখতে না পেরে এবার বলেই দিলেন।

বারাসতের মেয়ে সৌমিতৃশা। একমাত্র মেয়ে হওয়ার দরুন মা বাবার বড়ো আদরের। ছোটবেলা থেকেই বড্ডো দুস্টু ছিলেন সৌমিতৃশা।

তাকে এখনের কথা জিজ্ঞেস করা হলে মিষ্টি অভিনেত্রী হেসে বলেন, ‘আমি এখনো একই আছি, এখনো অধিকাংশ সময় মা আমাকে খাইয়ে দেয়।’ পর্দায় মিঠাই ও উচ্ছেবাবুর রসায়ন তো দারুন, ব্যাক্তিগত জীবনেও কি দুজনের সম্পর্ক একইরকম জানতে চাওয়ায়, উত্তেজিত ভাবে উত্তর দেয় সৌমিতৃশা, ‘অদৃত আর আমি তো সারাক্ষন সেটে মারপিট করি, কখনো ও আমাকে মারে তো আবার কখনো আমি ওর পিছনে দৌড়াই।’

নিজের দুর্বলতার কথা জানতে চাওয়ায় অভিনেত্রী বলেন, ‘মিঠাইয়ের মতোই আমিও মিষ্টি খেতে খুব ভালোবাসি, আগে টিউশন থেকে ফেরার সময়ে অন্তত ৩-৪ রকমের মিষ্টি খেয়ে বাড়ি ফিরতাম।

কিন্তু এখন ডায়েটের কড়াকড়িতে মিষ্টি খাওয়া ভুলেই গেছি,’ বলে দুঃখ প্রকাশ করলেন ‘মিঠাই।’

জীবন সঙ্গীর কথা জানতে চাওয়ায় সৌমিতৃশা বলেন, ‘যদি সেই রকম কাউ কে পাই তাহলে এঙ্গেইজমেন্ট টা করেই ফেলবো আর ১০-১২ বছর পর বিয়ে করবো।

সবার আগে নিজের ক্যারিয়ার তারপর অন্যকিছু’. বলেন সৌমিতৃশা। যদিও তিনি এটাও বলেন কখন কোথায় নিজের মনের মানুষের সঙ্গে দেখা হয়ে যেতে পারে কেউ বলতে পারে না।