বাংলা সিরিয়াল

অন্যদের মতো নয় দীপান্বিতা, অসাধারণ ভাবে বন্দুক দিয়ে বেলুন ফাটাতে পারেন খুকুমনি! একেবারেই তার ট্যালেন্ট এর পরিচয় দিলেন ষ্টার জলসার অভিনেত্রী

দীপান্বিতা রক্ষিত, নামটা বর্তমানে টলি পাড়ায় বেশ জনপ্রিয় নাম। “খুকুমণি হোম ডেলিভারি” ধারাবাহিক জগতে বেশ ভাল রকম নাম কামাতে পেরেছিল। বিশেষত খুকুমণির যেসব ডায়লগস ছিল তা মানুষের বিশেষ পছন্দের। এই ধারাবাহিকে খুকুমণির চরিত্র অর্থাৎ মুখ চরিত্রে অভিনয় করেছেন দীপান্বিতা রক্ষিত। বলাই বাহুল্য নিজের অভিনয় জীবনের শুরু থেকেই দর্শক হৃদয়ের এক ভালো রকম জায়গা করে নিয়েছিলেন অভিনেত্রী।

“সাঁঝের বাতি” ধারাবাহিকের চারুর বোন চুমকির চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল অভিনেত্রীকে। সেখান থেকেই দর্শক তার অভিনয় বেশ পছন্দ করেছিল। তবে খলনায়িকা থেকে মুখ্য চরিত্রের সফর খুব একটা সহজ ছিল না তাঁর। কিন্তু নিজের অভিনয় দক্ষতার মধ্যে দিয়ে মাতিয়ে রেখেছিলেন দর্শকদের। বর্তমানে অভিনেত্রীকে কোনো ধারাবাহিককে দেখা না গেলেও তিনি কাজ করছেন ডান্স ডান্স জুনিয়রে।

নিজের অভিনয়ের পাশাপাশি অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ ভাল রকম অ্যাকটিভ। নানা সময় অভিনেত্রীকে দেখতে পাওয়া যায় বিভিন্ন ধরনের ভিডিও নিয়ে। কখনো নিজের জিমের গ্র্যান্ড ওপেনিং এর লাইফ আবার কখনো বিভিন্ন রকম বোর্ড ডান্স মুভস নিয়ে।

সবদিক থেকেই বর্তমানে টেলিভিশন জগতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন দীপান্বিতা। পর্দায় খুকুমণি কে দেখতে যেমন লোকে পছন্দ করেছিল ঠিক তেমনি সোশ্যাল মিডিয়াতে ও তাঁর ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে জানতে মুখে থাকেন দর্শক। সেই কারণেই নিজের জীবনের ছোট বড় সমস্ত রকম খুঁটিনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর অনুরাগীদের সাথে শেয়ার করেন অভিনেত্রী।

সেরকম একটি ভিডিও আবার পোস্ট করেন তিনি। নিজের জীবনের ছোট ছোট আনন্দ গুলিও ভিডিও করে অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে পোস্ট করেন। যেমন বর্তমানে এই ভিডিও।

অভিনেত্রী দীপান্বিতা রক্ষিত এদিন মেলায় গিয়ে তার অসাধারণ প্রতিভার আমাদের সাথে পরিচয় করলেন। আমরা এতদিন জানতাম যে তিনি একজন ভালো অভিনেত্রী ও খুব প্রসিদ্ধ ডান্সার। কিন্তু আজ আমরা তার আরো এক প্রতিভার খোঁজ পেলাম। আমরা দেখলাম যে তিনি মেলায় গিয়ে এক শটেই বলে টিপ করলেন। এমনকি তিনি বলেও দিলেন যে তিনি কোন বলে টিপ্ করবেন। এই কার্য তিনি এক দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে করলেন। বলাই বাহুল্য অভিনেত্রীর এই প্রতিভা দেখে খুশি হয়েছেন তার ভক্তরা।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Dipanwita Rakshit (@dipanwitarakshit)

Back to top button