বাংলা সিরিয়াল

শ্রীরামকৃষ্ণের জন্মদিনে পুজো দিতে দক্ষিণেশ্বরের মন্দিরের হাজির হলেন পর্দার শ্রীরামকৃষ্ণ অভিনেতা সৌরভ সাহা

সম্প্রতি শেষ হয়েছে করুণাময়ী রানী রাসমণি ধারাবাহিক। ধারাবাহিকে রানীমার মৃত্যুর পর দেখানো হয়েছিল উত্তর পর্ব। সেখানে মা ভবতারিণী, রামকৃষ্ণ পরমহংসদেব এবং মা সারদার লীলা দেখানো হয়েছিল। রামকৃষ্ণ চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় করেছিলেন অভিনেতা সৌরভ সাহা। তার অসাধারণ অভিনয় এবং অবিকল রামকৃষ্ণর মতোই কথাবার্তা দর্শকের মন জয় করেছিল।

এতদিন রামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের চরিত্রে অভিনয় করতে করতে তিনি ঠাকুরের রুপ যেন ধারণ করেছেন এত সহজে এই প্রভাবশালী চরিত্র থেকে বেরিয়ে আসার সহজ নয়। তাই পরবর্তী কোন চরিত্রে প্রবেশ করার আগে তিনি কিছুটা সময় চেয়ে নিয়েছেন শারীরিক এবং মানসিকভাবে কিছুটা পরিবর্তন আনা দরকার বলেই তিনি জানিয়েছেন। গত সপ্তাহের শুক্রবার গিয়েছে রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের ১৮৬ তম জন্মদিন। ঐদিন ঠাকুরকে পুজো দিয়ে তার আশীর্বাদ নিতে গিয়েছিলেন সৌরভ স্বয়ং দক্ষিণেশ্বরের মন্দিরে।

ইতিমধ্যে সৌরভের দক্ষিণেশ্বরে যাওয়ার সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়েছে। নিজের পরবর্তী কাজ নিয়ে এখনো কিছু জানায়নি অভিনেতা। শ্রীরামকৃষ্ণের চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকের কাছ থেকে এত ভালোবাসা পেয়েছেন সৌরভ তার জন্য তিনি ঠাকুর কে ধন্যবাদ জানাতেও গিয়েছিলেন।

রহড়া রামকৃষ্ণ মিশনের ছাত্র সৌরভ ছোট থেকেই শ্রীরামকৃষ্ণের ভক্ত। প্রতিবছরই নিষ্ঠাভরে শ্রী রামকৃষ্ণের জন্মদিন পালন করেন তিনি। স্কুল ইউনিফর্ম পরেই সকল স্কুলের ছাত্ররা মিলে রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের জন্মদিন পালন করতে একজোট হন। সেদিন রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের বিগ্রহ আলাদা ভাবে সাজানো হতো তবে স্কুল থেকে বেরিয়ে আসার পর সেইদিনটা কিছুটা হলেও পাল্টে গিয়েছে সৌরভের জীবনে।

নিজের বাড়িতেই শ্রী রামকৃষ্ণ মা সারদার এবং স্বামী বিবেকানন্দের শ্বেত পাথরের মূর্তি প্রতিষ্ঠা করেছেন সৌরভ। সেই মূর্তি প্রতিদিন পুজো করা হয়। জন্মদিনে দেয়া হয় বিশেষ অন্নভোগ ফুল, মালা, চন্দন, ধূপে ভরে ওঠে সারা বাড়ি।

Back to top button