বাংলা সিরিয়াল

ছোট বোন নিপা কে বেশি ‘আসকারা’ দিয়ে মাথায় তুলছে সিদ্ধার্থ, সিদ্ধার্থকে কাঠগড়ায় তুলল রুদ্র! সিদ্ধার্থের ওপর বেজায় ক্ষিপ্ত মিঠাই ভক্তরা

বর্তমানে মিঠাই ধারাবাহিকের জনপ্রিয়তার দিনে দিনে বেড়েই চলেছে নিত্যনতুন টুইস্টার মাধ্যমে দর্শকদের অবাক করে দিচ্ছে মিঠাই। ধারাবাহিকের প্রতিটি সদস্যই বেশ পছন্দের। সম্প্রতি ধারাবাহিকে আবারো নতুন টুইস্ট দেখা দিয়েছে এর আগেই আমরা দেখেছি যে নিপা রুদ্র দার প্রেমে কতটা পাগল। রুদ্র দাকে ইমপ্রেস করার জন্য কত কিছুই না করে চলেছে। নিপা স্থির করেছে সেও আইপিএস অফিসার হবে এবং রুদ্র দাকে ইমপ্রেস করবে। কিছুদিন আগেই রুদ্রদা ও রাজিব এর বোন অর্থাৎ ধারা একজন ক্রিমিনাল কে ধরার উদ্দেশ্যে একটি রেস্টুরেন্টে ফাঁদ পেতেছিল। সেই প্ল্যান এর কথা জানতে পেরে নিপা সেখানে ইন্সপেক্টর এর বেশে উপস্থিত হয় এবং ঘটনাস্থলে অপরাধীকে ধরার বদলে অন্য একজন ব্যক্তিকে নিপা ধরে, যার ফলে ঘটে বিপত্তি অপরাধী সতর্ক হয়ে যায় এবং নিপার মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে সে পালিয়ে যায়।

নিপার মাথায় বন্দুক দেখে সেই সময় মিঠাই নিপা কে বাঁচাতে বন্দুকের সামনে দাঁড়িয়ে পড়ে। সেই মুহূর্তেই গন্ডগোলের মাঝে সে অপরাধী রুদ্রদের চোখ ফাঁকি দিয়ে বেরিয়ে যায় এবং সেই ঘটনায় নিপা জ্ঞানশুন্য হয়ে পড়ে এবং নিপাকে সুস্থ করতে সিদ্ধার্ত এবং মিঠাই ব্যস্ত হয়ে পড়ে। নিপার এই কাণ্ডকারখানা রুদ্র বেজায় রেগে যায় এবং নীপাকে বকতে আরম্ভ করে।

এদিকে গোটা ঘটনার জন্য সিদ্ধার্থ কে দায়ী করছে রুদ্র। কারণ সিদ্ধার্থই নিপার মাথায় এই প্রেমের ভূত চাপিয়েছিল। তবে সমস্ত পরিস্থিতির মাঝে সিদ্ধার্ত নিজের বোনকে ভালো ভাবে আদর দিয়ে বুঝিয়ে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে আসে। আর অন্যদিকে নিপা কে বাঁচাতে গিয়ে মিঠাই নিজের শাস্তি পূরণ করতে পারেনি, কিন্তু তাতে আফসোস নেই মিঠাই রানীর বা সিদ্ধার্থের।

আবার মিথাই চ্যালেঞ্জে হেরে যাওয়ার জন্য তোর্সা তাকে কথা শোনাতে থাকে এবং মিঠাই সমস্ত টা মাথা পেতে মেনে নিয়ে দিদিমনির কাছে ক্ষমা চায় এবং বলে যে দিদিমণি তুমি চ্যালেঞ্জটা জিতে গিয়েছ। পাশাপাশি রুদ্র সিদ্ধার্থের উপর অভিযোগ ও সমর্থন করছে দর্শক। দর্শক এর মতে নিপা একটু বেশি বাড়াবাড়ি করে ফেলেছে এখন। তাকে এতটা আশকারা না দিলেই ভালো হয়।

Back to top button