বাংলা সিরিয়াল

কী অবস্থা এতই মদ খেয়েছে যে মাঝরাতে হুঁশ ফিরল? প্রধানমন্ত্রীর মাতৃ বিয়োগে শোকবার্তা পাঠিয়েও রেহাই নেই সলমানের, চরম কটাক্ষের মুখে পড়তে হলো অভিনেতাকে

বছরের শেষটা একেবারেই ভালো গেল না প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির(Narendra Modi)। ব্যক্তিগত শোকের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। কারণ সম্প্রতি মাতৃবিয়োগ হয়েছে তার। শুক্রবার আমেদাবাদের এক হাসপাতালে প্রয়াত হয়েছে নরেন্দ্র মোদির মা হীরা বেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯৯ বছর। প্রধানমন্ত্রীর এই শোক প্রকাশ করেছেন বলিউড(Bollyeood) তারকারাও। তাদের মধ্যেই অন্যতম সলমান খান(Salman Khan)। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর দুঃখে পাশে দাঁড়িয়েও তাকে হতে হল চূড়ান্ত ট্রোল(Trolled)। তীব্র কটাক্ষ ধেয়ে এলো তার দিকে।

শিল্প সংস্কৃতির প্রতি বরাবরই একটু বেশি ঝোঁক প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। যে কারণে একাধিক তারকার পাশে দাঁড়িয়েও তাকে ছবি তুলতে দেখা গিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর এই দুঃখের দিনে তাই তাকে সমর্থন করেছেন অনেকে। কেউ কেউ ভার্চুয়ালি পাশে দাঁড়িয়ে শোক বার্তা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীকে। একই রকম ভাবে সলমান খান লিখেছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী, আপনার দুঃখটা আমি বুঝতে পারছি। মাকে হারানোর থেকে বড় ক্ষতি আর কিছু নেই। এই কঠিন সময় ঈশ্বর আপনাকে সর্বশক্তি দিক।

এতে ট্রোলিং করার মতন কি ব্যাপার হলো। সাধারণ একটা টুইট(Tweet)। হয়তো সালমান খান নিজেও এটা ভাবতে পারেনি যে এমন একটা কথা লেখার জন্য তাকে ট্রোল হতে হবে। আসলে তিনি এই টুইট করেছিলেন মধ্যরাত পেরিয়ে ভোররাতে। রাত ২টো ৪ মিনিটে। সেখানেই মন্তব্য বাক্সে একজন লিখেছেন এখন মনে পড়ল বুঝি টুইট করার কথা। আর একজন লিখেছেন জন্মদিনে বোধহয় একটু বেশি মদ খেয়ে ফেলেছিল সালমান তাই এখন হুঁশ ফিরেছে।

গত ২৭ ডিসেম্বর জন্মদিন ছিল বলিউডের ভাইজানের। দেখতে দেখতে ৫৭ বছরে পা দিলেন তিনি। জন্মদিন উপলক্ষে একটা বড় অংশকে নিয়ে আনন্দ আয়োজনে মেতেছিলেন তিনি। এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে। আর ভাইজানকে কিনা সেই জন্মদিনের দিনেই ট্রোল হতে হলো!

গান্ধীনগরে ভাইয়ের বাড়িতে এসে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। প্রয়াত মাকে ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানান তিনি। এমনকি মৃত্যুকালে মাকে কাঁধ দিতেও দেখা গিয়েছে তাকে।

Back to top button