বাংলা সিরিয়াল

নিপা ছাড়া অন্যকাউকে রুদ্রর পাশে সহ্য করতে পারছেনা মিঠাই ভক্তরা, অভিনেত্রী সোহিনী সরকারের সঙ্গে রুদ্র অর্থাৎ ফাহিম মির্জার ছবি দেখে ক্ষোভে ফেটে পরলেন দর্শক

জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক গুলির মধ্যে একটি হলো মিঠাই। মিঠাই ধারাবাহিক ইতিমধ্যেই দর্শকের মনে বিশেষ জায়গা করে নিয়েছে। এই ধারাবাহিকের প্রতিটি চরিত্রই দর্শকের বেশ পছন্দের, সব কটি চরিত্রের মধ্যে একটি বিশেষ চরিত্র হলো এসিপি রুদ্রর চরিত্র।

সম্পর্কে রুদ্র সিদ্ধার্থের হোস্টেলের বন্ধু, সেই সূত্রে পরিবারের সঙ্গে তার আলাপ। বর্তমানে ধারাবাহিকে দেখানো হচ্ছে মোদক পরিবারের ছোট মেয়ে শ্রীনিপা রুদ্রর প্রেমে পড়েছে, তবে রুদ্রর দিক থেকে এখনো সেরকম কোন ইঙ্গিত মেলেনি। কিন্তু দর্শকেরা মনে মনে ভেবে নিয়েছে রুদ্র সঙ্গে শ্রীনিপার একটি কেমিস্ট্রি ফুটিয়ে তোলা হবে ধারাবাহিক এর মাধ্যমে।

ইতিমধ্যেই সামনে এসেছে রুদ্র অর্থাৎ অভিনেতা ফাহিম মির্জার সঙ্গে অন্য এক নারীর ছবি। যা দর্শকরা একেবারেই মেনে নিতে পারছে না। তাদের মতে শ্রীনিপার সঙ্গেই রুদ্রকে বেশি মানায়, তার পাশে অন্য কোন নারীকে দেখতে নারাজ অনুরাগীরা। তবে প্রশ্ন হচ্ছে কে এই অন্য নারী? কার ছবি দেখে দর্শকরা এত ক্ষেপে উঠেছে।

বাস্তবে অভিনেতার জীবনে অন্য কোন নারী না আসলেও পর্দা তৃতীয় নারীর আগমন ঘটেছে ইতিমধ্যেই। তিনি আর কেউ নন সকলের প্রিয় অভিনেত্রী সোহিনী সরকার। বেশ কিছুদিন আগেই ফাহিম সোহিনী সরকারের সঙ্গে একটি বিজ্ঞাপনের শুটিং করেছেন সেই শুটিং এর মাঝেই সোহিনী সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করেছেন নিজের ইনস্টাগ্রামের আর সেই দিকেই ক্ষিপ্ত হয়ে রয়েছে মিঠাই ভক্তরা।

ফাহিম এবং সোহিনীর এই ছবি দেখে দর্শকরা অনেকেই নানারকম মন্তব্য করেছেন অনেকেই দাবি তার পাশে শুধুমাত্র শ্রীনিপা কেই মানায়। কেন তিনি অন্য নারীর সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন এই নিয়েই প্রশ্ন ওঠে দর্শকমহলে। এছাড়াও মিঠাই ধারাবাহিকে বেশ কিছুদিন হলো নিপা এবং রুদ্রর খুনসুটিভরা দৃশ্য দেখা যাচ্ছেনা সেই নিয়ে অভিযোগ রয়েছে দর্শকের।

বর্তমানে ফাহিম জি বাংলার দুটি জনপ্রিয় ধারাবাহিকে কাজ করছে এক হল মিঠাই যেখানে তিনি এসিপি রুদ্রদেবের চরিত্রে অভিনয় করছেন এবং দুই হলো কড়িখেলা যেখানে তিনি নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করছেন এবং তার চরিত্রের নাম কৌশিক। দুই ধারাবাহিকে বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অভিনয় করছেন অভিনেতা। তবে কড়িখেলার চেয়েও মিঠাই ধারাবাহিকের ফাহিমকে যেন দর্শকেরা বেশি আপন করে নিয়েছে।

Back to top button