বাংলা সিরিয়াল

দর্শকদের তুমুল ট্রোল এর জেরে অবশেষে বন্ধ হচ্ছে ‘যমুনা ঢাকি’ ও গঙ্গারাম? মাত্র ছয় সাত মাসেই শেষ গল্প! একসাথে একাধিক ধারাবাহিক শেষের পথে!

বাংলা ধারাবাহিক বিনোদনের একমাত্র মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে এমন মহিলাদের সংখ্যা খুব কম নয়। সন্ধ্যে হলেই বাড়িতে বাড়িতে সিরিয়াল দেখার ধুম লেগে যায়। কিন্তু এবার তাদের জন্য বড্ড খারাপ খবর আসতে চলেছে। যেখানে পূর্বে একেকটি ধারাবাহিক দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে চলেছে এমন নজির রয়েছে সেখানে সম্প্রতি কয়েকটি ধারাবাহিকের মেয়াদ এক বছরও হচ্ছে না। প্রায় কয়েক মাসের মধ্যেই শেষ হয়ে যাচ্ছে। সোমবার সকাল থেকেই টেলিপাড়ায় জোর গুঞ্জন, বন্ধ হতে চলেছে দেবশ্রী রায় অভিনীত ধারাবাহিক ‘সর্বজয়া’। প্রধানত টিআরপিকমে যাওয়ার কারণেই কি বন্ধের মুখে এই ধারাবাহিক? তবে সেই ব্যাপারে একেবারে অবশ্য মুখে কুলুপ এঁটেছেন দেবশ্রী রায় থেকে শুরু করে প্রযোজনা সংস্থা। তবে সর্বজয়া একমাত্র নয়, এই মাসেই বন্ধ হতে চলেছে পাঁচটি ধারাবাহিক।

মাসের শুরুতেই বন্ধ হয়ে গেছে ‘খুকুমণি হোম ডেলিভারি’। শোনা যাচ্ছে ১৪ মে বন্ধ হতে চলেছে ‘সর্বজয়া’। এই ধারাবাহিকের শুরু থেকেই নানা ধরনের বিতর্কের মুখে পড়তে হয়েছে দেবশ্রী রায়কে। যদিও শুরু থেকে এই ধারাবাহিক টিআরপি তালিকায় জায়গা করে নিয়েছিল, তবে বিগত বেশ কয়েক সপ্তাহ টিআরপি কমেছে ধারাবাহিকের। সে কারণেই কি তাহলে শেষমেষ বন্ধ হচ্ছে এই ধারাবাহিক? তবে শুধু সর্বজয়া একমাত্র নয়, একইসঙ্গে বন্ধ হতে চলেছে আরও বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক। ফলে ধারাবাহিকের প্রেমীদের চোখে জল আসার জোগাড়।

২০ মে একই সঙ্গে শেষ হচ্ছে ‘গঙ্গারাম ‘ ও ‘যমুনা ঢাকি’। তার ঠিক দুদিন পর ২২ মে শেষ হচ্ছে ‘খেলাঘর ‘। এই খবরেই তোলপাড় টেলিদুনিয়া। পাশাপাশি একইসঙ্গে কি করে পরপর বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এতগুলো ধারাবাহিক,তা নিয়েও অবাক অনেকে। তবে সবটাই যে টিআরপির খেলা তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে এইভাবে টিয়ারপির খেলায় একের পর এক সিরিয়াল বন্ধের মুখে হলে দর্শকদের এর থেকে নেশা উঠে যাবে বলাই যায়। এই সিরিয়াল গুলি বন্ধ হয়ে গেলে সন্ধের সময় কি দেখে সময় কাটবে তাই নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন অনেক দর্শকরা। একমাত্র সাথী বিনোদনের এইসব ধারাবাহিক গুলি কিছুদিন চলার পরেই অবশেষে অস্তা চলের পথে। দেখা যাক নতুন কি ধারাবাহিকের মাধ্যমে ফের শূন্যস্থান পূরণ হয়।

Back to top button