বাংলা সিরিয়াল

‘ডি এন এ টেস্টের যুগে স্বয়ম্ভূ পিতৃ পরিচয় প্রমান করতে পারছে না! নিউ প্রোমো এলো অথচ উৎসব গ্রেফতার হলো না? এইভাবে স্লো চললে বেঙ্গল টপার হবে তো?’ জগদ্ধাত্রী নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ নেটিজেনদের!

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘জগদ্ধাত্রী’। এই ধারাবাহিকে দেখা যাচ্ছে যে জগদ্ধাত্রীর দুটো পরিচয় রয়েছে, সে একদিকে বাড়ির শান্তশিষ্ট মেয়ে জগদ্ধাত্রী, যে সবার সমস্ত আবদার মেটাই, সমস্ত বাড়ির কাজ করে, অন্যদিকে সেই স্পেশাল ক্রাইম ব্রাঞ্চের ডাকাবুকো অফিসার জ্যাশ সান্যাল, যে দিন রাত গুন্ডাদের পিছনে ঘুরে বেড়ায়। এখন‌ও অবধি জগদ্ধাত্রীর আসল পরিচয় জানে না অনেকেই। এমনকি জগদ্ধাত্রীর বাবা, সৎ মা ,সৎ বোন পর্যন্ত জানে না জগদ্ধাত্রী আসলে ডাকাবুকো পুলিশ অফিসার। এইভাবে প্রতিমুহূর্তে দ্বৈত চরিত্র ক্যারি করা জগদ্ধাত্রী তার বেস্ট ফ্রেন্ড, তার সহ কর্মী স্বয়ম্ভূকে বিয়ে করে শুধুমাত্র স্বয়ম্ভূর লড়াইয়ে তার পাশে থাকার জন্য, তাকে তার পিতৃপরিচয় দেওয়ার জন্য।

সম্প্রতি এই ধারাবাহিকের একটি নতুন প্রোমো দেওয়া হয়েছে। জগদ্ধাত্রী ধারাবাহিকের প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে যে, কৌশিকীর বর সমরেশ চ্যাটার্জীর বই রিলিজড অনুষ্ঠানে তার স্ত্রী কৌশিকী মুখার্জিকে মঞ্চে ডেকে পাঠানো হয়, এই সময় কৌশিকীকে টার্গেট করে গুলি চলে, কৌশিকীর মেয়ে কাঁকন সেটা দেখতে পেয়ে কৌশিকিকে বাঁচাতে যায় আর কাঁকনের গায়ে গুলিটা লাগে,কাঁকনের গায়ে গুলি লাগতেই স্বয়ম্ভূকে নিয়ে অপারেশনে নেমে পড়ে জগদ্ধাত্রী।

নতুন এই প্রোমো দেখবার পর অনেক দর্শক‌ই সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, মনে হচ্ছে কোথাও গিয়ে যেন একটু হলেও গতি হারিয়েছে জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক জগদ্ধাত্রী। স্বয়ম্ভূ বাড়ির ছেলে কিনা সেই নিয়েই এখন নিত্য ঝামেলা চলছে! অন্যদিকে নিউ একটি প্রোমো দিয়ে দিলো অথচ এখনো অবধি পুরনো গল্প শেষ করে উৎসবের গ্রেফতারি দেখালো না!

আরেকজন সন্দেহ প্রকাশ করে লিখেছেন যে,যেখানে বিঞ্জান এত উন্নত, যেখানে চাইলেই ডি এন এ টেস্ট সম্ভব?সেখানে স্বয়ম্ভূ নিজের পিতৃপরিচয় প্রমান করতে পারছে না? এইভাবে এপিসোড চললে বঙ্গ সেরার আসন ধরে রাখতে পারবে তো এই ধারাবাহিক?

Back to top button