বাংলা সিরিয়াল

‘আমি রানু মন্ডল এর গান শুনে নেব তবে এটা পারবো না’, সামাজিক মাধ্যমে হাসির রোল যমুনা ঢাকির দাঁড়িয়ে ড্রামস বাজানো দেখে

ফের আরও একবার সামাজিক মাধ্যমে হাসির রোল উঠলো জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক যমুনা ঢাকিকে কেন্দ্র করে। কিছুদিন আগেই দেখা গিয়েছিল যমুনা রবীন্দ্র সংগীত বিকৃতি করায় বেজায় চটেছেন নেটিজেনরা। পরিচালক থেকে শুরু করে চিত্রনাট্যকার সবাইকেই তুলোধোনা করেছিলেন তারা। এর সাথে ছিল ভুল কায়দায় গিটার বাজানো। এবার যমুনা বাজালেন ড্রামস। এর জন্যই আরো একবার ট্রোলড হতে হলো তাকে।

কথায় আছে গল্পের গরু নাকি গাছে ওঠে। এই ধারাবাহিকের ক্ষেত্রে একেবারেই যে তেমনটাই দেখানো হচ্ছে অন্তত তেমনটাই মতামত জানিয়েছেন একাধিক নেটিজেন। আপাতত ধারাবাহিকের গল্প অনুযায়ী যমুনা যোগ দেবেন একটি গানের ব্যান্ড এ। যে ব্যান্ডের নাম নারী। আর সেখানেই যমুনাকে দেখা যাবে ড্রামস বাজাতে।

সেখানে নেপথ্যে ‘বাজছে ভালো করে বাজাও গো দোতারা।’ ড্রামস বাজাতে না জানা যেকোনো লোকই বুঝতে পারবে যে গানের সাথে একেবারেই তার ধ্বংসের তাল মিলছে না। আর সবচেয়ে বড় কথা এটাই যে ড্রামাসরা সব সময় বসে বসে ড্রামস বাজান। কিন্তু এখানে যমুনা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ড্রামস বাজাচ্ছেন, তাও আবার পেটানোর কায়দায় তাকে দেখা যাচ্ছে।

জি বাংলা চ্যানেল কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে এই গ্রীষ্মের এক ঝলক প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়েছে হাসির রোল। এক নেটিজেন এর মন্তব্য, “যেটুকু ড্রামস বাজানো শিখেছিলাম ভুলে গিয়েছি।” অপর একজন লিখেছেন, “পারকের তাল রেখে বাজনা বাজাতে বললে পারতে তো।” নির্মাতাদের নিয়ম সমালোচনা হয়নি। আর যে কত গাঁজাখুরি গল্প দেখতে হবে বিষয়টা নিয়েই চিন্তিত দর্শকেরা। আর একজন লিখেছেন, “আমি রানু মন্ডল এর তেরি মেরি গান শুনে নেব তবে এটা শুনতে পারবো না।”

প্রথমে এই ধারাবাহিকে দেখানো হচ্ছিল একজন মহিলা ঢাকির জীবন কাহিনী এবং সমাজের সাথে তাল লড়াই। কিন্তু ধীরে ধীরে সেই সব চেঞ্জ হয়ে যমুনাকে দেখা গেল মাল্টি ট্যালেন্টেড হিসাবে। কখনো যমুনা গিটার বাজাচ্ছে, আবার কখনো তবলা, আমার কখনো দেখা যাচ্ছে গানও গাইতে। এইরকম ভুলভাল ভিডিও দেখে যমুনা ধারাবাহিক বন্ধ করার দাবি পর্যন্ত তুলেছেন নেটিজেনরা।

Back to top button