‘আমি ফুর্তি মারতে যাইনি’! কৃষ্ণকলি ‘শ্যামা’র সঙ্গে তাকে নিয়ে নেটিজেনদের করা ট্রোলের বিরুদ্ধে এবার মুখ খুললেন মদন মিত্র

কিছুদিন আগেই নারদা মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছিলেন তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্র। অনেকদিন টালবাহানার পরে অবশেষে জামিন পেয়েছেন তিনি। জেলে থাকাকালীন অসুস্থ হয়ে নার্সিংহোমে ভর্তি হতে হয়েছিল তাকে কিন্তু জেল থেকে বেরিয়েই এবার সুস্থ হয়ে উঠলেন তিনি।

এদিন জামিন পাওয়ার পর তাকে লাল পাঞ্জাবি ও লাল ধুতির সঙ্গে ম্যাচিং লাল মাস্ক পড়ে বের হতে দেখা যায় সিবিআই এর অফিস থেকে। সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে দেখা হতেই তিনি জানান তার শরীর সুস্থ হয়ে গেছে। পাশাপাশি সাংবাদিকদের আবদার রাখতে দু কলি গান গেয়েও শোনান তিনি।

জেল থেকে বেরিয়ে তিনি অংশগ্রহণ করে ত্রাণ বিলি কর্মসূচিতে। পাশাপাশি তাকে এদিন পুজো দিতে দেখা যায় বেলঘড়িয়ার খাটু শ্যাম মন্দিরেও। তার সঙ্গে আজ উপস্থিত ছিলেন টলিউড অভিনেত্রী ‘কৃষ্ণকলি’ ধারাবাহিকের শ্যামা অর্থাৎ তিয়াসা রায়।

দুজনকে মন্দিরে গলায় মালা পড়ে পাশাপাশি বসে পুজো দিতে দেখা যায়। এই ছবি প্রকাশ পেতেই সোশ্যাল মাধ্যমে বিভিন্নভাবে নেটিজেনদের কাছে ট্রোলড হতে হয় মদন মিত্র কে।

তারই প্রতিবাদে তিনি একটি ফেসবুক লাইভ করে জানান তিয়াসা সহ একাধিক টলিউড অভিনেতা অভিনেত্রীরা তাদের সাত দিনের অভিনয় থেকে করা ইনকাম দান করেছেন ত্রাণ তহবিলে। সেই জন্যেই ত্রাণের কর্মসূচিতে আমন্ত্রিত হয়েছিলেন তিয়াসা ওরফে শ্যামা।

পাশাপাশি নেটিজেনদের ট্রোলের প্রতিবাদ করে তিনি আরো জানান তিনি একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। তাই মানুষের দুর্যোগে ঝাঁপিয়ে পড়া তার দায়িত্ব।

টলিউড অভিনেত্রী কে নিয়ে তিনি কোনরকম ফুর্তি করতে যাননি, গিয়েছিলেন মানুষকে সাহায্য করতে। বোঝাই যাচ্ছে জেল থেকে বেরিয়ে মদন মিত্র একেবারে নতুন উৎসাহে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে।