বাংলা সিরিয়াল

শ্বাশুড়ির পা টিপতে টিপতে রেগে গিয়ে গলা টিপে দিল দ্যুতি! ‘গাঁটছড়া’ ধারাবাহিকের মজার ভিডিও ভাইরাল

দ্যুতি পড়েছে বেকায়দায়! বেশি চালাকি করতে গিয়ে নিজের ফাঁদে নিজেই পড়ে গিয়েছে সে। গাঁটছড়া ধারাবাহিকের যারা নিত্য দর্শক তারা সকলেই জানেন যে প্রথম থেকেই বড়লোক বাড়ির বউ হবার লোভ ছিল দ্যুতির এবং তার মায়ের নিজের মেয়েকে কি করে বড়লোক বাড়িতে বিয়ে দিতে হয় তার সবরকম প্রচেষ্টা করে গিয়েছিল। কিন্তু ঐ যে কথায় আছে অতি চালাকের গলায় দড়ি। তাই ঋদ্ধিমান এর সঙ্গে বিয়ে ঠিক হবার পরেও রাহুলের ফাঁদে পড়ে গিয়ে বেকায়দায় পড়েছে দ্যুতি। এদিকে দ্যুতি এতদিন পর্যন্ত জানতোই না যে রাহুল আসলে সিংহ রায় পরিবারের কেউ নয়।

আসলেই প্রথম থেকেই নানান মিথ্যে ছল চাতুরীর মাধ্যমে দ্যুতির মা দ্যুতির বিয়ে ঠিক করেছিল সিংহ রায় পরিবারে। দ্যুতির রূপে ঋদ্ধিমান ও ভুলে গিয়েছিল। কিন্তু পরে রাহুলের ফাঁদে পড়ে নিজের বিয়ের দিন বিয়ের মণ্ডপ থেকে পালিয়ে যায় দ্যুতি। কিন্তু রাহুল পরে দ্যুতি কে বিয়ের আশা দেখিও বিয়ে করে না। যার ফলে মিথ্যে প্রেগনেন্সির নাটক করে সিংহ রায় বাড়িতে বউ হয়ে ঢোকে দ্যুতি।

কিন্তু অবশেষে ধরা পড়ে যায় সেই মিথ্যে নাটক। কারণ মিথ্যে বেশিদিন চাপা থাকেনা। আর দ্যুতির এই মিথ্যে খবর জানতে পেরে সিংহ রায় বাড়ির প্রত্যেকেই তার উপর ক্ষেপে রয়েছে। সিংহ রায় বাড়ির বড়কর্তার অর্থাৎ ঋদ্ধির দাদু দ্যুতি কে আদেশ দিয়েছে এই বাড়িতে থাকতে সে থাকতে পারে একটা শর্তে, এই বাড়ির কোন বিলাসিতা পাবে না সে। এমনকি বাড়ি সমস্ত রকম বাড়ির কাজ করাচ্ছে ঘর মোছা থেকে শুরু করে বাসন মাজা কাপড় কাচা এমনকি পরিবারের সদস্যদের ফাইফরমাশ খাটা। আর এর মধ্যে সামনে এসেছে ধারাবাহিকের মজার একটি ভিডিও ক্লিপ।

সেই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে যে দ্যুতি নিজের শ্বাশুরি অর্থাৎ পারমিতা পা টিপে দিচ্ছে এবং পারমিতা অর্ডার করছে দ্যুতি কে। কিন্তু দ্যুতি মনে মনে ভাবছে শাশুড়ির গলা টিপে দেওয়ার। আর এই ভেবেই পারমিতার দিকে দুই হাত নিয়ে এগিয়ে যায় সে। আর তখনই পারমিতা জেগে যায় আর ভয় পেয়ে পারমিতা বলে ওঠে ‘কি করছো তুমি?’ তখন দ্যুতি কথা ঘোরানোর জন্য বলে যে ‘মা আপনার হার টা আসলে উল্টে গিয়েছিল, তাই ওটা ঠিক করছিলাম কি সুন্দর হার টা’। পারমিতা তখন বলে ‘নিজের কাজটা করো আমার হার দেখতে হবে না সারাক্ষণ খালি গয়নার উপর লোভ।’ সম্প্রতি এই মজার ছোট ভিডিওটি সামনে এসেছে।

Back to top button