বাংলা সিরিয়াল

‘৮.২ পেয়ে বঙ্গ সেরা গৌরীর অভিনয় নিয়ে আর কথা হবে না’ বলার প্রত্যুত্তরে এক নেটিজেন বললেন, ‘ট্রোলিং করার পর‌ই গৌরী অভিনয় উন্নতি করে বেঙ্গল টপার হয়েছে’

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘গৌরী এলো’। এই ধারাবাহিকে গৌরি আর ঈশানের কেমিস্ট্রি রীতিমতো চমকে দেওয়ার মতো, ধারাবাহিকে গৌরী হলো ঘোমটা কালীর অংশ অন্যদিকে ঈশান কে বলা হয় মহাদেবের অংশ। এই দুই অংশের যেদিন মিল হবে,সেদিন ঘোমটা কালীর ঘোমটা খুলে যাবে।

গত সপ্তাহে দেখানো হয়েছিল যে বহুদিন পর গৌরীকে ফিরে পেয়ে ঈশান আর গৌরী বেড়াতে গেছে এবং তাদের একটা মিনি হানিমুন হচ্ছে। সমুদ্রের ধারে তারা নিজেদের মতো কিছু একান্ত মুহূর্ত কাটাচ্ছে।‌ এমনকি গৌরী নিজের সাথে বেশি শাড়ি নিয়ে আসে নি বলে ঈশান তাকে চুড়িদার কিনে দেয়। এরপর দেখা যায় যে, এই ধারাবাহিকে ঈশান আর গৌরীর মহামিলন পর্ব এবং এই পর্ব দেখানোর সময় আরো দেখানো হয় যে ঘোমটা কালীর মুখের ঘোমটার থেকে সামনের অংশ চির ধরে সামনে পড়ে যায়। এরপর বহুদিন পরে আবার ঘোষাল বাড়িতে ঈশান গৌরীকে ফিরিয়ে নিয়ে আসে এবং গৌরী ঘোষাল বাড়িতে ফিরে এসে বাড়ির সবার কোথায় কী অসুবিধা হচ্ছে তা দেখতে শুরু করে এবং নিজে হাতে সকলকে খিচুড়ি রান্না করে খাওয়ায়। এই ভাবেই জমজমাট হয়ে উঠেছে জি বাংলার ‘গৌরী এলো’ ধারাবাহিকের পর্ব আর তারপর এই সপ্তাহের টি আর পি লিস্ট বেরোলে দেখা গেলো যে ৮.২ পেয়েছে এই ধারাবাহিক।

৫৬ বারের বার বেঙ্গল টপার হওয়া জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই কে হারিয়ে ‘গৌরী এলো ’ হয়েছে বেঙ্গল টপার‌। এই ধারাবাহিক বেঙ্গল টপার হওয়ার পর দর্শকরা জবাব দিতে শুরু করেছেন সেই সমস্ত মানুষদের যারা বলতেন গৌরী অর্থাৎ মোহনা মাইতি অভিনয় করতে পারেন না।

একজন যেমন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, “অবশেষে গৌরী এলো ফ্যানদের সপ্ন পূরণ চুলকানি মাসি মেসোদের মুখে ঝামা ঘষে ৮.২ রেটিং নিয়ে এই সপ্তাহে বাংলার নাম্বার ওয়ান ধারাবাহিক #গৌরী_এলো আজ অনেক অপমানের জবাব দিল গৌরী. নায়িকা অভিনয় জানে না এক্সপ্রেশন দিতে পারে না ন্যা কামি করে আরও কত কি শুনেছে ছোট্ট মেয়েটা আজকে সে সব লোকেদের আচ্ছা করে জবাব দিল গৌরী,এত দিন কিছু বলিনি আজ সেই দিন টা এসেছে কথা বলার,এরপর থেকে একজন অভিনেত্রী কে ছোট করার আগে অন্তত একবার ভাববেন। এমন অনেক মানুষ কে চিনি যারা আমার ফ্রেন্ড লিস্টেও আছে যারা সারাদিন গৌরী কে নিয়ে হুদাই আজাইরা ট্রল করে তাদের ম্যানশন বা ট্যাগ দিলাম না শুধু বলবো তোমরা গৌরী কে নিয়ে অযথা ট্রল করো না মেয়েটা তো তোমাদের পাকা ধানে মই দেয় নি।”

তবে অনেকে আবার এও লিখেছেন যে, ট্রোলিং করা হতো বলেই গৌরী অভিনয়ে উন্নতি করেছে। তাই ট্রোল করাও কখনো কখনো ভালো। একজন যেমন সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন,“তবে একটা কথা সত্যি, সবাই ট্রল করার পরেই গৌরীর ভ্রু উঁচু করে যে এক্সপ্রেশন গুলো সবার অদ্ভুদ লাগতো, ওগুলা প্রায় কমে গেছেই বলা চলে!”

Back to top button