বাংলা সিরিয়াল

BDO হওয়ার স্বপ্ন দেখলে মারতো বাবা, সেই বাবাই এখন শ্বশুরবাড়িতে ব্যান্ড পার্টি নিয়ে হাজির! ভাইরাল ভিডিও

জি বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘অপরাজিতা অপু’। ধারাবাহিক অনুযায়ী ছোট থেকেই অপু অর্থাৎ অপর্ণার সরকারি চাকরির পরীক্ষা দিয়ে বিডিও হওয়ার ইচ্ছা। কিন্তু ছোট থেকেই নিজের এই ইচ্ছার জন্য বারবার বকুনি খেয়েছে সে। তার এই স্বপ্নকে কখনোই তার বাবা সমর্থন করেননি। তবে সম্প্রতি মেয়ের বিডিও হওয়ার খবর পেয়ে তার শ্বশুরবাড়িতে রীতিমতো ব্যান্ড পার্টি নিয়ে হাজির হয়েছে তার বাবা। অপুর সাথে সাথে অবাক হয়েছে সকলেই।

সম্প্রতি ধারাবাহিকে অনেক বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে সরকারি চাকরির পরীক্ষার সমস্ত ধাপ অতিক্রম করে অবশেষে বিডিও হয়েছে অপু। শুরুতে তার শাশুড়ি তার চাকরি করার পক্ষপাতী না হলেও সে যে বিডিও হওয়ার পরীক্ষা দিতে পেরেছে তাতে তার শাশুড়ি মায়ের একটা বড় ভূমিকা রয়েছে। নিজের স্বামী দিপু ও শাশুড়ির জন্যই আজ সে সমস্ত বাধা অতিক্রম করে বিডিও হতে পেরেছে। আর তাতেই বেজায় খুশি বাড়ির সকলে। এমনকি খুশি হয়েছে তার নিজের বাবাও। যিনি কোনদিনও পক্ষপাতী ছিলেন না তার এই চাকরি করার। তবে সময়ের সাথে সাথে তিনি নিজের ভুল বুঝতে পেরেছেন। আর যার জন্যই আনন্দে একেবারে ব্যান্ড পার্টি বাজিয়ে ঘোড়ার গাড়ি সাজিয়ে নিয়ে চলে এসেছেন।

মেয়েকে কাছে ডেকে নিজের ভুল স্বীকার করে সকলের সামনে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন তার বাবা। তিনি অপুকে বলেছেন তিনি নিজের ভুল বুঝতে পেরেছেন এতদিনে। তিনি এবার সত্যিই মনে থেকে খুশি হয়েছেন তার সাফল্যে। এর পরেই তাকে তার বাবা এবং শ্বশুরমশাই একসাথে ঘোড়ার গাড়িতে তুলে দেয় এবং সেটা করে চারিদিকে ঘোড়ায়। সে যখন গাড়িতে করে যাচ্ছিল, তখন তার পাশে পাশেই হেঁটে যাচ্ছিল তার স্বামী দিপু। তাদের অনস্ক্রিন রসায়ন দর্শকদের বেশ পছন্দ তা আর আলাদাভাবে বলার প্রয়োজন নেই।

তার সাফল্যে তার বাবা খুশি হয়েছে এটা দেখে বেজায় খুশি অপুও। এখন সে তার শাশুড়ি, বাবা, শ্বশুর এবং বরের চোখের মণি। তাকে চোখে হারায় সকলে। বিডিও হওয়ার পর থেকেই দুর্নীতিবাজ লোকদের ত্রাস হয়েছে অপু। তাকে রীতিমত ডরায় সকলে। বর্তমানে ধারাবাহিকে কি দেখানো হচ্ছে? এরপরে দর্শকদের জন্য আর কি কি চমক রয়েছে? তা জানার জন্য জি বাংলার পর্দায় দেখতে হবে অপরাজিত অপু। জি বাংলার পর্দায় সন্ধ্যা ৭.৩০-৮.০০’র সময় দেখানো হয় এই ধারাবাহিক।

Back to top button