জনপ্রিয় হলেও ব্যাক্তিগত জীবন নিয়ে মুখ খুললেন সকলের প্রিয় জবা, রইলো তার ব্যাক্তিগত জীবনের গল্প

বিভিন্ন ধারাবাহিক আমাদের মনে দাগ কেটে যায়, কোনোটায় ধারাবাহিকের গল্প, কোনোটায় চরিত্রের দারুন অভিনয় সবই আমাদের জীবনে নানাভাবে প্রভাবিত করে থাকে।

ঠিক তেমনি এক চরিত্র হলো জবা অর্থাৎ পল্লবী শর্মা। কে আপন কে পর নামে ধারাবাহিকটির জনপ্রিয়তা পুরোপুরিভাবে নির্ভর করেছে পল্লবী শর্মার উপর।

জনপ্রিয় হলেও ব্যাক্তিগত জীবন খুশির ছিলোনা অভিনেত্রীর। বেশ কিছুদিন আগে জি বাংলার দিদিনাম্বার ওয়ান শোটিতে অংশগ্রহণ করেন পল্লবী। সেখানেই নিজের ব্যাক্তিগত জীবন নিয়ে কথা বলতে শোনা যায় অভিনেত্রীকে।

ছোট থাকতে মা ব্রেইন টিউমারে আক্রান্ত হন তারপর বহু চিকিৎসা করেও বাঁচানো সম্ভব হয়নি তাকে। এইভাবেই বিনা মাতৃত্বেই বড়ো হয়ে ওঠা পলবীর।

নিজের বলতে পিসির কাছেই মানুষ পলবী। বাবা থাকলেও বেশিরভাগ সময় পিসির সাথেই কাটাতে ভালোবাসতেন অভিনেত্রী। দাদা থাকতেন ব্যঙ্গালোরে।

পিসি অভিনয় জগতের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তাই তার টেলিভিশন জগতের মানুষদের সঙ্গে ওঠাবসা থাকতো। অভিনেত্রী আরো জানান, পিসির সাথে কখনো কখনো সেটেও উপস্থিত থাকত ছোট্ট জবা এবং পিসির হাত ধরেই টেলিভিশন জগতে পদার্পন ঘটে তার।

ছোট থাকতে অনেক কিছুর মধ্যে থেকে যেতে হয় তাকে। মাধ্যমিক দেওয়ার সময় তার বাবা মারাযান। এতো কষ্টের মধ্যেও নিজেকে সামলে আবার উঠে দাঁড়ান তিনি এবং পরীক্ষা দেন ও সফলভাবে পাশও করেন।

ছোটথেকে সেটে যাবার জন্য বহু মানুষ তাকে চিনতে শুরু করে এবং সেই সূত্রেই ছোটোখাটো চরিত্রে অভিনয় করবার সুযোগ চলে আসে তার।

এইভাবেই একদিন জবার চরিত্র পেয়েযান পল্লবী। ছোট থেকে নানা প্রতিকূলতার মধ্যে দিয়ে যেতে হয় পল্লবীকে কিন্তু তিনি কখনো হার মানেননি সবসময় দাঁড়িয়ে থেকে মোকাবিলা করেছেন সবকিছুর।