বাংলা সিরিয়াল

মাছের দৃশ্যে শুট করতে গিয়ে শুটিং ফ্লোরেই বমি করে ভাসালেন অভিনেত্রী সৌমিতৃষা কুন্ডু, মাছের গন্ধ একেবারেই সহ্য করতে পারেন না জানালেন অভিনেত্রী

কথায় আছে মাছে ভাতে বাঙালি। তবে বর্তমানে অনেক বাঙালিরাই মাছ এর নামে নাক সিটকয়, সেই বাঙালিদের দলে রয়েছেন টেলিভিশনের ছোটো পর্দার সকলের প্রিয় মিঠাই অর্থাৎ সৌমিতৃষা কুন্ডু। মাছ এর নামেই গা বমিবমি ভাব আসে তার। মাছ একেবারেই খেতে পছন্দ করেন না অভিনেত্রী। মাছের ঝোল, মাছ ভাজা এসব তার ধরা ছোঁয়ার বাইরে। তবে ফিস ফ্রাই, ফিস ফিংগার জাতীয় খাবার তার বেশ পছন্দের। সম্প্রতি একটি ভিডিওতে মাছের প্রতি এলার্জি নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী।

সম্প্রতি কিছুদিন আগেই সৌমিতৃষার একটি ছোট্ট ভিডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে সৌমিতৃষা জমিয়ে বসে ফিস ফিংগার খাচ্ছেন। আর ঠিক তখনই ক্যামেরার ওপার থেকে তাকে মাছ সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়। তখন অভিনেত্রী জানান মাছ খেতে তিনি মোটেই ভালোবাসেন না, মাছের আঁশটে গন্ধে তার বমি পায় তিনি একেবারেই সহ্য করতে পারেন না। এই ব্যাপারে তার উচ্ছেবাবু অর্থাৎ আদৃত রায় এর সঙ্গে বিশেষ মিল রয়েছে।

মিঠাই ধারাবাহিকে উচ্ছেবাবু একেবারেই মাছ পছন্দ করেন না আর বাস্তব জীবনেও তাই। তবে ধারাবাহিকের জন্য সৌমিতৃষাকে বহুবার কাঁচা মাছ হতে নিয়ে শুট করতে হয়েছে। এই ব্যাপারে অভিনেত্রী বলেন, দর্শকের জন্য, যাতে দর্শকরা এন্টারটেইন হন সেই জন্যই তিনি এই শুট করতে রাজি হয়েছেন। এই দৃশ্য করতে গিয়ে সেটে বমি পর্যন্ত করে ফেলেছিল সৌমিতৃষা। ধারাবাহিকে দেখা গিয়েছে মিঠাই কে কখন আড় মাছ আবার কখনো পাবদা মাছ রান্না করে দর্শকের মন জয় করেছে।

বর্তমানে ধারাবাহিক গুলির মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ধারাবাহিক হলো মিঠাই। রাত ৮টা বাজার সাথে সাথেই বাড়ির সকলে টিভির সামনে হাজির হন, শুধুমাত্র মা ঠাকুমারা নন বাড়ির সকলেই এখন মিঠাই ভক্ত। ধারাবাহিকটি শুরুর দিন থেকেই দর্শকের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছে। টিআরপি লিস্টেও মিঠাই এখন নম্বর ওয়ার। মিঠাই এবং সিদ্ধার্থের কেমিস্ট্রি দর্শকের মন জয় করেছে। প্রায় প্রতিদিনই নিত্যনতুন চমক থাকে ধারাবাহিকে, আর মিঠাই সিদ্ধার্থের খুনসুটি। সব মিলিয়ে এখন একেবারে জমজমাট মিঠাই ধারাবাহিক।

Back to top button