৪৬ বছর বয়সেও তাকে লাগে ১৫! গ্ল্যামার বেড়েই চলেছে ‘দিদি নং ১’-এর রচনা ব্যার্নাজির, মুখ ফুটে স্বীকারও করলেন নিজের দূর্বলতা

চেহারা দেখলে মনে হবে বয়স যেন আটকে গেছে অভিনেত্রী রচনা ব্যার্নাজির। বয়স ৪৬ হলে কি হবে গ্ল্যামার যেন বেড়েই চলেছে তার। বাংলা সহ আরো অন্যান্য সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। কিন্তু এখন সবার প্রিয় দিদিই বলেই পরিচিত।

প্রায় একদশকের বেশি বাংলা সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। সাথে ছিলেন সবার প্রিয় বুম্বাদা। শুধু তাই নয় অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গেও হিন্দি সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি।

কিন্তু প্রায় ১০ বছর সিনেমার জগতকে বিদায় জানিয়েছেন তিনি। ছেলে বড়ো করবার দায়িত্বকেই বেশি প্রাধান্য দেন অভিনেত্রী।

কিন্তু তাতে কি নিজের অবিকল চেহারা ধরে রেখেছেন তিনি। তাকে দেখলে মনে হবে এখনো বয়স ১৫ তেই আটকে গেছে তার। নিজের গ্ল্যামারাস চেহারার সম্পর্কে জানতে চাইলে বলেন, সঠিক খাদ্য অভ্যাস ও শরীরচর্চাই তার এই গ্ল্যামারাস চেহারার রহস্য।

প্রায় ১০ বছরের বেশি তিনি দিদি নাম্বার ওয়ান সঞ্চালনা করছেন। এই ১০ বছরে দিদি নাম্বার ওয়ান এর টিআরপি পৌঁছেছে শীর্ষে যদিও তার একমাত্র কারণ হল সবার প্রিয় দিদি রচনা ব্যানার্জি।

নিজের ইনস্টাগ্রাম একাউন্টে বেশ সজাগ অভিনেত্রী। নিত্য দিন কিছু না কিছু পোস্ট করতেই থাকেন তিনি। সম্প্রীতি তার মিষ্টির প্রতি দুর্বলতা প্রকাশ করেছেন তিনি এবং নিজের মুখে স্বীকার করেছেন যতই তিনি কঠোর ডায়েট ফলো করুন না কেন মিষ্টি দেখলেই তিনি লোভ সামলাতে পারেননা।

শুধু সোশ্যাল মিডিয়াই নয় দিদি নাম্বার ওয়ান এর মঞ্চেও তার এমন বক্তব্য শোনা গিয়েছিল। মিষ্টি অভিনেত্রীর মিষ্টি দুর্বলতা হওয়াটাই স্বাভাবিক। তার এমন স্বীকারোক্তি ভক্তদের বেশ ভালই লেগেছিল বলা চলে।