রেল স্টেশনে সাধারণ মানুষের মতো ভাইরাল জনপ্রিয় গায়ক Arijit Singh, ফ্যানেরা ভাইরাল করল ছবি

বলিউডের প্রথম সারির গায়কদের কথা উঠলেই যার নাম সবার আগে উঠে আসে তিনি হলেন বাংলার ছেলে অরিজিৎ সিং। ১৯৮৭ সালের ২৫ এপ্রিল পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জে জন্ম হয় গায়কের। ছোটবেলা থেকেই ছিলো গানের প্রতি গভীর ভালোবাসা।

২০০৫ সালে মাত্র ১৯ বছর বয়সে সিঙ্গিং রিয়েলিটি শো-ফেম গুরুকুলে অংশ নেন অরিজিৎ, তবে বিজয়ী তো হওয়া দূরের কথা, শো থেকে মাঝ পথেই আউট হয়ে বেরিয়ে যান তিনি। এরপর অরিজিতের শুরু হয় দীর্ঘ স্টাগলিং।

প্রথম ব্রেক পান মার্ডার ২ ছবিতে, ‘ফির মহব্বত’ গানটিতে একটি অংশে সুর দেন অরিজিৎ, তবে বিশেষ সাফল্য আসেনি। ভাগ্যের চাকা ঘোরে ২০১৩ সালে, আশিকি ২ ছবিতে ‘তুমহি হো’ গানটি গেয়ে সঙ্গীত মহলে সারা ফেলে দেন অরিজিৎ। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

বর্তমানে অরিজিৎ বলিউডের অন্যতম সেরা গায়ক। তবে জীবনে এত খানি প্রতিপত্তি পেয়েও অরিজিৎ রয়ে গিয়েছেন সেই জিয়াগঞ্জের সাদামাটা গ্রামের ছেলেটি হয়েই।

কাজের সুবাদে মুম্বাই মহানগরীতে থাকতে হয় অরিজিৎ কে, তবে নিজের জন্মস্থান জিয়াগঞ্জে ফিরে আসলে অরিজিৎ হয়ে যান একেবারে পাশের বাড়ির ছেলে। কখনো তাকে দেখা যায় বন্ধুদের সাথে বাইকে করে ঘুরে বেড়াতে, কখনো বিয়ে বাড়িতে গিয়ে তুমুল নাচতে, আবার কখনো দেখা যায় মাথায় গামছা বেঁধে বাজারের মাঝখান দিয়ে হেঁটে যেতে। সাফল্যের উচ্চতায় উঠে গেলেও নিজের পা দুটো কে মাটিতেই রেখেছেন জনপ্রিয় গায়ক।

তেমনি আরো একবার সাদামাটা রূপে দেখা মিলল অরিজিতের, পরনে নীল রঙের টি-শার্ট মাথায় সাদা টুপি কানে হেডফোন দিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন স্টেশনে।

দেখলে বোঝার উপায় নেই এই মানুষটি এই মুহূর্তে বলিউডের সেরা গায়ক। অরিজিতের গানের অনুরাগী আট থেকে আশি, বিশেষ করে হৃদয়ে ভঙ্গের পর অরিজিতের গান ছাড়া গতি নেই এই প্রজন্মের।

যার গানে আবেগে বিহ্বল করে দেয় প্রেমিক হৃদয়, যার সুর লক্ষ লক্ষ মানুষের হৃদয় ঝড় তোলে, সেই মানুষটি নিজের স্টারডম কে একপাশে রেখে বারবার হয়ে ওঠেন অজপাড়াগাঁ জিয়াগঞ্জের সেই পুরনো অরিজিত। আর সেই ভিডিও ভাইরাল না হয় যায় কোথায়!