রাস্তায় স্বল্প পোশাকে জিমন্যাস্টিক, নিজের প্রতিভা দিয়েই অজস্র মানুষের নজর কাড়ছেন গ্রামের মেয়ে মিলি!

পুরাতন কালে মেয়েদের শুধুমাত্র ঘরের অন্দরেই থাকতে হতো। সংসার সামলানো, সন্তান লালন পালন করা এই সমস্ত কাজ মহিলারা করে থাকতেন। এমনকি পড়াশুনা করবার সুযোগ ছিল না তখন।

আস্তে আস্তে সমাজ পরিবর্তন হল মানুষের চিন্তা ধারারও পৰিৱৰ্তন ঘটল। মেয়েদের পড়াশুনা করানো শুরু হল, সমাজের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে শেখানো হল। যুগ পরিবর্তনের সাথে সাথে মেয়েরা এখন শুধু সংসার সামলায় না, সাবলম্বী হয়ে নিজের ও পরিবারের সমস্ত দায়িত্ব পালন করে।

ঠিক এমনি এক সাবলম্বী মেয়ে হলো রায়গঞ্জের কুলিক নদীর পাড়ের আব্দুল ঘাটার মিলি সরকার। সংসার সামলে নিজের স্বপ্ন পূরণে অঙ্গীকার মিলি। কনটেম্পোরারি নাচের সাথে যোগব্যায়াম ও করেন মিলি।

আর সেই যোগব্যায়ামের ভিডিও মাঝে মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ারও করেন তিনি। সম্প্রীতি শাড়িতে ব্যাক ফ্লিপ মেরে বেশ জনপ্রিয় হয়ে যান মিলি। তার এই ভিডিওটি ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েগিয়েছে।

দুদিন আগে মিলির আর একটি ভিডিও মানুষের নজরে আসে। ভিডিওটিতে মিলি একটি হিন্দি গানের সঙ্গে তাল মিলিয়ে জিমন্যাস্টিক করছেন তিনি। তার পরনে ছিল লাল রঙের একটি শর্ট ড্রেস।

মিলির এই ভিডিও দেখে মানুষজন মিলিকে আরো উৎসাহ দিয়েছেন। মিলির এই ভিডিওটি প্রায় ১৫ হাজারের বেশি মানুষ দেখে ফেলেছে।

বহু দর্শক মিলিকে জিমন্যাস্টিক নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। অনেকে আবার বলেছেন জিমন্যাস্টিক এর মাধ্যমে মিলি দেশকে বিশ্বের দরবারে প্রস্তুত করবার যোগ্যতা রাখেন।

নিজের অভ্যাস এই ভাবে চালিয়ে নিয়ে যাবার বহু অনুপ্রেরণা দিয়েছেন সবাই। সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে এই রকম অগুনতি প্রতিভা দর্শকের সামনে উঠে আসে।

এমনকি সঠিক উৎসাহ পেলে তারা দেশের নামও উজ্জ্বল করে। ঠিক সোশ্যাল মিডিয়ার অপকারের ভিড়ে এই সুন্দর সুন্দর উপকার গুলি দেখতে ভালোই লাগে।

সোশ্যাল মিডিয়া না থাকলে হয়তো মিলির মতো প্রতিভাগুলি কবে হারিয়ে যেত। মিলি তার প্রতিভার মাধ্যমে প্রমান করে দিয়েছে যে বিয়ে হয়ে গেলেই মেয়েদের জীবন শেষ হয়ে যায় না। জীবন চলতেই থাকে।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Mili Sarkar (@milisarkar72)