পোষা কুকুরকে গ্যাস বেলুন লাগিয়ে আকাশে ওড়ানোর চেষ্টা! পশু নির্যাতনের অভিযোগ দিল্লিতে গ্রেফতার ইউটিউবার

ইউটিউবসহ বিভিন্ন রকম সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্মে আমরা নানান রকম কনটেন্ট দেখতে পাই। বিশেষ করে ইউটিউব এর কনটেন্ট ক্রিয়েটররা নিত্যনতুন বিষয়ে ভিডিও বানিয়ে নেটিজেনদের বারংবার চমকে দেন।

কিন্তু এবার দর্শককে আকর্ষিত করে লাইক এবং ভিউস পাওয়ার চক্করে গ্রেপ্তার হতে হল দিল্লির ইউটিউবার গৌরব শর্মাকে।
সম্প্রতি তিনি একটি ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করেন যেখানে দেখা যায় তিনি তার পোষ্য পমেরিয়ান প্রজাতির একটি কুকুরকে পিঠে হিলিয়াম যুক্ত বেলুন বা গ্যাস বেলুন লাগিয়ে দিয়েছেন। ফলে কুকুরটির আয়তনে ছোটখাটো হওয়ায় সে গ্যাস বেলুনের জোরে শূন্যে ভাসতে শুরু করে, মাটি থেকে প্রায় ছফুট উপরে।

এরপরই দেখা যায় তাদের প্রিয় পোষ্য আকাশে ভাসছে দেখে আনন্দে হাততালি দিচ্ছেন ওই ইউটিউবার এবং তার মা।
সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও পোস্ট করার পরেই নেটিজেনদের তীব্র আক্রমণের মুখে পড়তে হয় গৌরবকে। দিল্লিতে তার বিরুদ্ধে পশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

একাধিক পশুপ্রেমী সংগঠন তীব্র সমালোচনা করে গৌরবের এই কাজের। তার বিরুদ্ধে ৩৪, ২৬৯ এবং ১৪৪ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। ফলে ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই দিল্লির মালব্য নগর থানার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন গৌরব।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে গৌরব বাধ্য হন ভিডিওটি সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম থেকে ডিলিট করতে। পাশাপাশি ভুল স্বীকার করে তিনি ক্ষমাও চেয়েছেন নেটিজেনদের কাছে। জানিয়েছেন তার পোষ্য টিকে তিনি নিজের শিশুর মতই ভালোবাসেন এবং এই ভিডিওটি করার সময় তিনি যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিলেন।

তবে বলাই বাহুল্য এ ধরনের অপরিণত কাজে মোটেও খুশি নন তার অনুগামীরা। ইতিমধ্যেই গণহারে তার ইউটিউব চ্যানেল থেকে সকলে আনসাবস্ক্রাইব করতেও শুরু করেছেন।