বহু বছর পর দেখা মিললো বিরল প্রজাতির দুই মাথা বিশিষ্ট চন্দ্রবোড়া সাপের, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

সাপের মতো একটি বিষধর প্রাণীকে সকলেই ভয় পায়। যার এক ছোবলে মানুষ মরে যেতে পারে তাকে ভয় পাওয়াটাই স্বাভাবিক। প্রচন্ড বিষধর সাপের মধ্যে অন্যতম সাপ হলো চন্দ্রবোড়া। এখনো গ্রামে গঞ্জে সাপের দেখা মেলে প্রায়ই। গ্রামের লোকজন এই দৃশ্য দেখতে অভ্যস্ত। সম্প্রতি দুই মাথা বিশিষ্ট বিরল প্রজাতির চন্দ্রবোড়া সাপের ভিডিও ভাইরাল হল।

সম্প্রতি একটি বিরল প্রজাতির সাপের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সাপটির নাম চন্দ্রবোড়া। বিরল প্রজাতির কারণেই এর দুটি মাথা। এই সাপটি বিষাক্ত সাপেদের মধ্যে অন্যতম। আমরা সাধারণত সাপের একটি মাথা দেখতেই অভ্যস্ত। ভারতীয় বন দপ্তরের আধিকারিক সুশান্ত নন্দের পোস্ট করা ভিডিওতে এমনটাই দেখা গেছে।

এই দুই মাথা বিশিষ্ট বিরল প্রজাতির চন্দ্রবোড়ার খুব একটা দেখা মেলে না। এখনও পর্যন্ত ভারতে মোট ৪ টি মাথা বিশিষ্ট চন্দ্রবোড়া সাপের দেখা মিলেছে। জানাগেছে সাপটি জিনগত বিকৃতির কারণেই এমন দুটি মাথা নিয়ে জন্মেছে। তবে দুটো মাথা নিয়ে সাপটি কতদিন বেঁচে থাকবে সেই নিয়ে ধন্দে আছেন ভারতীয় বনদপ্তর আধিকারিকরাও।

সম্প্রতি মহারাষ্ট্রের কল্যাণে এমন দুই মাথা বিশিষ্ট চন্দ্রবোড়া নামে বিরল প্রজাতির সাপের দেখা মিলেছে। গ্রামবাসীরা সাপটিকে বনদপ্তরের হাতে তুলে দিয়েছেন। যে সাপটিকে বনদপ্তরের কর্মীরা উদ্ধার করেছেন তার দৈর্ঘ্য ১১ সেন্টিমিটার।

এর আগে ২০১৯ সালে এই এলাকা থেকেই এমন আরেকটি বিরল প্রজাতির সাপ উদ্ধার করা হয়েছিল কিন্তু সেই সাপটাকে ঐ সময়ে বাঁচানো যায়নি। গত বৃহস্পতিবার মহারাষ্ট্রের কল্যাণের দুই ব্যক্তির চোখে পড়ে এই বিরল প্রজাতির সাপ।

এরপরই তারা ভারতীয় বনদপ্তর এ খবর দেয় সাপটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়ার জন্য। খবর পেয়ে উদ্ধারকারীরা এসে সাপটিকে প্যারেলের হাফকিন প্রতিষ্ঠানে পাঠানোর বন্দোবস্ত করেছিলেন।