এক বিরল প্রজাতির মিলিটারি ছাপ গায়ে মাছ ধরা পড়লো নদীয়ায়! তুমুল ভাইরাল ভিডিও

প্রতিদিনের মতোই নদীতে জাল ফেলেছিল জেলে ভাইরা। জালে পড়েছে মস্ত বড় রুই মাছ, এমনটা ভেবেই জল থেকে তুলেছিলেন মৎস্যজীবীরা। কিন্তু তুলেই দেখেন সে এক অদ্ভুত দর্শন। জেলেদের দাবি এই মাছ কোন সাধারণ মাছ নয়! এটা কোনও বিরল প্রজাতির মাছ।

নদীয়া শান্তিপুরের স্টিমার ঘাটার ভাগিরথী নদীতে এই ঘটনাটি ঘটে। ১০ কেজি ওজনের এই বিরল প্রজাতির মাছটির গায়ে ভারতীয় জওয়ানদের পোশাকের মতো ছাপ রয়েছে। যেহেতু মাছের গেয়ে গাঢ় সবুজ রঙের ছোপ ছোপ দাগ রয়েছে। তাই ওখানকার স্থানীয়রা মাছটির নাম দিয়েছে মিলিটারি মাছ।

প্রতিদিনের মতোই গত বৃহস্পতিবার মৎস্যজীবীরা মাছ ধরতে নদীতে জাল ফেলেছিল। জাল টানার সময় তাঁরা লক্ষ্য করেন একটি বড়সড় রুই মাস জালে পরেছে। এরপরই মৎস্যজীবীরা বোঝেন রুই নয়। মাছের মাথাটা মাগুর মাছের মতো।

কিন্তু এত বড় মাগুর! জেলেদের মধ্যে বিস্ময় কাজ করতে শুরু করে। নৌকাতে মাছটি তুলতেই, মাছের গায়ে কালচে সবুজ নকশা দেখে বোঝেন এ কোনও সাধারণ মাছ নয়। বিরল প্রজাতির কোনও মাচ জালে ধরা পড়েছে।

এদিন যারা মাছ ধরতে নদীতে গিয়েছিল তাঁরা জানান, এ ধরনের মাছ আগে কখনও ভাগিরথী নদীতের দেখা যায়নি। ওখানকার এক মৎস্যজীবীর দাবি, এই নদীতে রুই, কাতলা অন্যান্য মাছ দেখা যায় ঠিকই। কিন্তু আজ যে মাছ পাওয়া গেল সেই মাছটি নতুন। যেহেতু মাছের গেয়ে মিলিটারিদের পোশাকের মতো ছাপা আছে। তাই এই মাছের নাম তাঁরা মিলিটারি মাছ দিয়েছেন।

বিরল প্রজাতির মাছ জালে ধরা পরার খবর ছড়িয়ে পড়তেই মিনিটের মধ্যেই সেখানে ভিড় করে স্থানীয়রা। গঙ্গা বক্ষে আগাগোড়াই বড় মাছ দেখতে পাওয়া যায়। তবে ইদানিং নাম না জানা বিরল প্রকৃতির মাছ ধরা পড়ছে সেখানে। এই ঘটনার কিছু দিন আগেই হুগলির মাছ ধরা জালে আটকে পড়েছিল এক শুশুক। যদিও তাঁকে ছেড়ে দেয় জেলেরা।