ব্যবসা ও বাণিজ্য

প্রতিদিন মাত্র ৫০ টাকা জমালেই হয়ে যেতে পারেন কোটিপতি, মাসে মাসে অল্প টাকা ইনভেস্ট করে বড় অঙ্কের টাকা জমিয়ে ফেলতে পারবেন

বর্তমান পরিস্থিতিতে বহু মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। ফলে দুবেলা খাবার জোটাতেই নাভিশ্বাস উঠছে তাদের। এই সমস্ত মানুষের পক্ষে সঞ্চয় করা সম্ভব নয়। তবে চাকরি জীবনের শুরুর দিন থেকে যদি সঞ্চয় করার উদ্যোগ নেওয়া যায় তাহলে একটা সময়ের পর আপনিও হতে পারেন কোটিপতি। কিভাবে? চলুন জেনে নেওয়া যাক।

মিউচুয়াল ফান্ডের ব্যাপারে আমরা সকলেই কম বেশি জানি। তবে আমাদের মধ্যে অনেকেই মিউচুয়াল ফান্ডে টাকা ইনভেস্ট করতে ভয় পান। তাদের জন্য এবার সুখবর। যারা এখনো পর্যন্ত ইনভেস্টমেন্ট প্লানিং করেননি তাদের জন্য বিশেষজ্ঞরা নিজেদের মতামত জানালেন। সিপ (SIP- সিস্টেমেটিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান) ভাল বিকল্প বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা৷ সিপে অনেক বছর ধরে অল্প অল্প করে ইনভেস্ট করলে একটা সময়ে গিয়ে গ্রাহকরা পেতে রিটার্ন পেতে পারেন এক বিশাল অঙ্কের টাকা।

২৫ বছর বয়স থেকে সিপে ইনভেস্ট করতে শুরু করলে ৬০ বছর বয়সে এই স্কিমের গ্রাহক লাভবান হতে পারেন। ২৫ বছর বয়স থেকে যদি প্রতিদিন ৫০ টাকা করে সিপে ইনভেস্ট করা যায় তাহলে ৬০ বছর বয়সে গিয়ে গ্রাহক রিটার্ন নিয়ে ১.১ কোটি টাকা পেয়ে যাবেন। মিউচ্যুয়াল ফান্ড সাধারণত ১২ থেকে ১৫ শতাংশ রিটার্ন পাওয়া যায়। তাহলে ৩৫ বছরে ৬.৩ লক্ষ টাকা ইনভেস্ট করলে ১২.৫ শতাংশ রিটার্নের হিসেবে গ্রাহক ১.১ কোটি টাকা পেয়ে যাবেন।

যদি কোন গ্রাহক মিউচুয়াল ফান্ড সিপে ৩০ বছর বয়স থেকে ইনভেস্ট করা শুরু করেন তাহলে ৩০ বছরে যদি ৫.৪ লক্ষ টাকা ইনভেস্ট করতে পারবেন গ্রাহকরা। এক্ষেত্রে ৫ বছর কমে যাবে। অর্থাৎ মাত্র ৫ বছর কম হওয়ার জন্য ৪০ লক্ষ টাকার লোকসান হবে গ্রাহকদের। অতএব, ইচ্ছুক গ্রাহকরা দেরি না করে সমস্ত চাকুরীজীবীরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব মিউচুয়াল ফান্ড সিপে-র গ্রাহক হন। এর ফলস্বরূপ লাভবান হবেন এই স্কিমের গ্রাহকরাই।

Back to top button