ভবিষ্যত সুনিশ্চিত করতে সরকারি স্কিম! মাত্র ১ টাকা করে জমালেই ১৫ লক্ষ পাওয়ার বিরাট সুযোগ, হাত ছাড়া করবেন না

যে কোন বাবা-মা-ই চায় নিজের সন্তানের ভবিষ্যৎ সুনিশ্চিত করতে। বর্তমান সমাজে মেয়েরা ছেলেদের থেকে কোনো অংশে পিছিয়ে নেই। বরং অনেকাংশে এগিয়েই আছে। মেয়েদের পড়াশোনার জন্য সরকারের বেশ কয়েকটি স্কিম আছে।

যা কাজে লাগিয়ে মেয়েরা নিজেদের পড়াশোনা এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে। একাধিক সরকারি স্কিম গুলির মধ্যে জনপ্রিয় একটি স্কিম হল ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’।

‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনার’ মাধ্যমে যে কোন বাবা-মা তার মেয়ের ভবিষ্যৎ সুনিশ্চিত করতে পারেন। খুব অল্প টাকা বিনিয়োগ করতে হয় এই স্কিমে। এই ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’ মেয়েদের জন্য একটি স্মল সেভিংস স্কিম।

‘বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও’ সিস্টেমের আওতায় এই যোজনাকে লঞ্চ করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। এই যোজনার জন্য কোনরকম ট্যাক্স দিতে হয় না গ্রাহকদের।

‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’ স্মল সেভিংস স্ক্রিম গুলির মধ্যে সবথেকে ভালো। কারণ এই স্কিমের সুদের হার বেশি। এই যোজনার জন্য অ্যাকাউন্ট খুলতে গেলে গ্রাহককে মাত্র ২৫০ টাকা দিতে হয়।

কন্যা সন্তানের জন্মের পর থেকে ১০ বছর বয়স হওয়া পর্যন্ত এই যোজনার জন্য অ্যাকাউন্ট খোলা যায়। অ্যাকাউন্ট খোলার পর থেকে মেয়ের বয়স ১৮-২১ বছর হওয়া পর্যন্ত কিংবা মেয়ের বিয়ে পর্যন্ত এই যোজনার গ্রাহক থাকা যাবে।

‘ সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’-র জন্য এক অর্থবর্ষে জমা করতে হয় মাত্র ২৫০ টাকা। এই যোজনার জন্য দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত জমা করা যায়। কেন্দ্র সরকার আগে ৯.২% সুদ দিত কিন্তু বর্তমানে সরকার এই যোজনার সুদ দিচ্ছে ৭.৬%।

এই স্কিমের ক্ষেত্রে মেয়েদের বয়স ৮ বছর হয়ে গেলেই তাদের পড়াশোনার জন্য ৫০% পর্যন্ত টাকা তুলেও নেওয়া যাবে। প্রতি মাসে যদি ৩০০০ টাকা করে ইনভেস্ট করা যায় তবে ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা’ তে বছরে ৩৬০০০ টাকা হবে।

গ্রাহকেরা ১৪ বছর পর ৭.৬% বার্ষিক সুদে ৯,১১,৫৭৪ টাকা পাবেন। ২১ বছরে যদি এটি ম্যাচিওর করে তাহলে ১৫,২২,২২১ টাকা পেয়ে যাবেন গ্রাহকরা।

সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা জন্য অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে পোস্ট অফিসে বা সমৃদ্ধি যোজনা ব্যাংকে। যদি কোন গ্রাহক বার্ষিক ২৫০ টাকা দেওয়া বন্ধ করে দেন তাহলে তাকে সেই অ্যাকাউন্টটি পুনরায় চালু করার জন্য আবারো ২৫০ টাকা দিতে হবে এবং তার সাথে আরো ৫০ টাকা পেনাল্টি চার্জ হিসেবে দিতে হবে।