বাম্পার খবর: অক্ষয় তৃতীয়ার আগে বিরাট কমলো সোনার দাম, সস্তা হল রুপো

মধ্যবিত্তের জন্য সুখবর, খানিক কমলো সোনার দাম, আগামীকাল অক্ষয় তৃতিয়া আর আজ ভারতীয় বাজারে খানিক নিম্নমুখী সোনাযর মূল্য। এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম হলুদ ধাতুর দাম ০.৩৪ শতাংশ অর্থাৎ ১৬১ টাকা কমে দাঁড়িয়েছে ৪৭,৪৭২ টাকা।

সোনার পাশাপাশি রুপোর মূল্যও ঘটেছে পতন। এক কিলোগ্রাম সিলভার ফিউচার্সের দাম ১.১২ শতাংশ বা ৮০৯ টাকা নেমে দাড়িয়েছে ৭১,১২০ টাকা।

গতকাল ভারতীয় বাজারে সোনার মূল্য ছিল ১০ গ্রাম পিছু ৪৭,৪৭২ টাকা। কত বছর করোনাকালে সোনার মূল্য অনেকখানি চড়েছিল, গত আগস্টে ১০ গ্রামের দাম ৫৬,২০০ টাকা, সেই তুলনায় এই বছর এখনো প্রায় ৮,৭০০ টাকা কম রয়েছে সোনার দাম।

এই বছর সোনার দামে অনেকটাই পতন ঘটেছে। বছরের শুরুতে ৫০,১৮০ টাকা ছিলো দাম তারপর ৪.৩৯ কমেছে পরবর্তী সময়ে।

সোনার দাম পড়ার ফলে সামান্য স্বস্তির শ্বাস মেরেছে মধ্যবিত্তরা। ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গির ফলে আপাতত ১০ গ্রাম সোনা ৪৬,৮০০-৪৮,০০০ টাকায় আছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে সোনার দাম কমার কারণে খড়িদারির ভালো সুযোগ বাড়বে। গত কয়েক দিন ধরে সোনার দাম ঊর্ধ্বমুখী হচ্ছিল, তবে বুধবার খুব বেশি না কমলেও খানিক পতন ঘটেছে সোনার দামে।

আর সেই কারণেই অক্ষয় তৃতীয়ার দিন গ্রাহকরা সোনা কেনার একটা সুযোগ পাবেন।

পাশাপাশি রুপোর দামেও ঘটেছে বড়ো রদবদল, রিলগেরে ব্রোকিং লিমিটেডের সুগন্ধা সচদেব জানিয়েছেন, মাঝামাঝি সময়ে ৭৫,৫০০-৭৬,০০০ টাকায় পৌঁছে যেতে পারে এক কেজি রুপোর দাম।

অথবা বছরের শেষের দিকে ৮৫,০০০ টাকা পর্যন্ত পৌঁছাতে পারে বলে অনুমান।

একই সাথে সোনার ক্ষেত্রে সুগন্ধা সচদেব জানিয়েছেন, মাঝামাঝি সময়ে ৫২,০০০ টাকায় পৌঁছে যেতে পারে ১০ গ্রাম সোনার মূল্য, আর পরবর্তীতে তা পৌঁছাতে পারে ৫৫,০০০-৬০,০০০ টাকার মধ্যে।