আপনার কাছে কি রয়েছে পুরোনো ১০ টাকার নোট? তাহলে মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই মালামাল হয়ে যাবেন আপনি জেনে নিন কিভাবে ।

করোনা র ফলে দেশের অর্থনীতির অবস্থা বেশ বেহাল।তার মধ্যে এই লকডাউনের মধ্যেও অনেকেই পুরোনো টাকা,অ্যান্টিক পিস বিক্রি করে বেশ কিছু পয়সা রোজগার করেছেন। তবে এখন ওই আগের মতো অ্যান্টিক জিনিস নিলামে বিক্রির চল তেমন আর নেই। এখন ইন্টারনেটে যুগ তাই অনলাইনে বিক্রি বেশি হচ্ছে। তবে আপনারা হয়ত জানেন না শুধু কয়েনই নয়, পুরোনো নোটেরও বেশ ভালই দাম আছে বাজারে। যদি আপনার কাছে পুরোনো ১০ টাকার নোট থাকে তাহলে ভালই টাকা আপনি রোজগার করতে পারবেন । মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই কামাবেন হাজার হাজার টাকা।

যদি আপনার কাছে সেই ব্রিটিশ আমলের পুরোনো দশ টাকার নোট বা কয়েন থাকে, তাহলে সেটি বিক্রি করে ই ব্ল আপনি পেয়ে যাবেন অনেক টাকা টাও ঘরে বসেই। ১০ টাকার নোটের উপরে থাকতে হবে অশোক স্তম্ভ। ১৯৪৩ সালে ব্রিটিশ সরকার এই নোট জারি করেছিল এবং এই নোটে ভারতীয় সি ডি দেশমুখের স্বাক্ষর রয়েছে। এছাড়াও এই ১০ টাকার পুরোনো নোটে একদিকে অশোক স্তম্ভ অন্যদিকে একটি নৌকা থাকে এবং পিছনের দিকে দুদিকে ইংরেজিতে ১০ রুপি লেখা রয়েছে।যদি এই টাকা আপনার কাছে থেকে থাকে তাহলে আর দেরি না করে ঘরে বসে বিক্রি করে হয়ে যান মালামাল।

এবার জেনে নেওয়া যাক কোন ওয়েবসাইটে এটা বিক্রি করতে পারবেন । মার্ট মা শপিক্যুইলের ওয়েবসাইটে বিক্রি করতে পারবেন আপনার জমানো পুরোনো নোট। আজকের বাজারে এই নোট ভীষণই দুষ্প্রাপ্য। কিন্তু এই নোট একটি থাকলেই আপনি পেতে পারেন একসাথে ২০-২৫ হাজার টাকা ! এমনকি, বাড়িতে বসেই অনলাইনেই বিক্রি করতে পারবেন এই নোট। পুরোনো নোট বাজার থেকে একেবারে না চলে গেলেও সেই নোট এখন আর ছাপানো হচ্ছে না, ফলে এর মূল্য দিন দিন বেড়েই চলেছে। এখন বাজার দখল করেছে নতুন নোট। তাই যারা পুরোনো নোট বা কয়েন জমাতে ভালবাসেন বা জমিয়েছেন তারা অনায়াসেই সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারেন এমনকি বেশি দরেও বিক্রি করতে পারবেন।