জ্যোতিষশাস্ত্র

আপনার হাতে বিষ্ণু রেখা থাকলে তাহলে আপনি ভাগ্যবান! প্রচুর ধন সম্পত্তির অধিকারী হবেন, জেনে নিন বিষ্ণু রেখার মহিমা

ভাগ্যে বিশ্বাস করে না এমন মানুষ নেই বললেই চলে। জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন হওয়া খুব একটা কঠিন কাজ নয়। কেউ বলতে পারেনা কার কখন ভাগ্য পরিবর্তন হয়।

ঠিক তেমনি জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে বেশ কিছু রেখা থাকে যেগুলি থাকলে ব্যাক্তির জীবনে সুখ সমৃদ্ধি ঘটে। ঠিক তেমনি হল ‘বিষ্ণুরেখা’।

কিন্তু আদতে এই বিষ্ণু রেখাটি কি? জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে যাদের হাতে বিষ্ণু রেখা থাকে তাদের উপর ভগবান বিষ্ণুর কৃপা থাকে। বিষ্ণু রেখা কিছুটা ইংলিশ অক্ষর বি এর মতো দেখতে হয়। গুরু পর্বতের উপরে হৃদয় রেখার সমাপ্তি ঘটে।

এবার সেই সমাপ্তি পর্যায় থেকে একটি শিরা তর্জনী ও মধ্যমার মাঝখানে অবস্থান করে। ঠিক সে স্থানটি থেকে আর একটি শিরা হাতের তর্জনী হয়ে গুরু পর্বতের দিকে অবস্থান নেয় তাকেই বলা হয় ‘বিষ্ণু রেখা’।

জোতিষ শাস্ত্র মতে যাদের হাতে এই বিষ্ণু রেখা থাকে তারা সর্বদাই সত্যের পথে চলেন। বিষ্ণু দেবের আশীর্বাদে তারা সমস্ত কাজে সাফল্য অর্জন করেন।

পরিশ্রমের সঠিক মূল্য পেয়ে থাকেন এনারা। এমনকি এনারা ভুল কাজ করেও শান্তির অভাব ঘটে না এদের মধ্যে থেকে। সমাজে বেশ জনপ্রিয় ও সম্মানিত হয়ে ওঠেন। যে কাজ শুরু করেন প্রত্যেকটি কাজ সম্পূর্ণ হয়।

জ্যোতিষ মতে শুধুমাত্র বিষ্ণু রেখাই নয় আরো বেশ কিছু রেখা রয়েছে যেগুলিও অত্যন্ত শুভ মানা হয়ে থাকে। যেমন – শঙ্খ রেখা, চক্র রেখা , ত্রিশূল রেখা ও কমল রেখা।

শঙ্খ রেখাও প্রভু বিষ্ণুদের কৃপা থাকে। ত্রিশূল রেখা শিব ঠাকুরের কৃপা দৃষ্টি হিসেবে দেখা হয়। কমল রেখা যাদের থাকে তাদের উপর মা লক্ষ্মীর কৃপা দৃষ্টি বজায় থাকে। তার কখনো ধন ধান্যের কমতি হয় না।

Facebook Notice for EU! You need to login to view and post FB Comments!
Back to top button